কি চায় (বউ এর) শ্বাশুড়ীর মন?

রাশিদা বেগমঃ নায়লা ও রাকীব (প্রতিকী নাম) দম্পতি ১২ বছর ধরে নানান চিকিৎসা করে এখন আজ এমন এক পর্যায়ে যে টেস্টটিউব চিকিৎসা এখন বাঞ্চনীয় হয়ে পরেছে। রাকীব নায়লাকে ইঙ্গিত করল ঘটনাটি আমাকে বলতে। বলেই সে নিজে রুম থেকে বেরিয়ে গেল। কি সে ঘটনা? নায়লা বলতে শুরু করল। তার জীবনে একটি ঘটনা আছে যার কোন ইম্প্যাক্ট আজকের এই ইনফার্টিলিটির উপর আছে কিনা তা জানতে চাইল।

বিয়ের প্রথম দিকেই নায়লা একদিন শ্বাশুড়ীকে কমপ্লেইন করল যে তার বমি বমি লাগছে এবং সাইকেল অফ হয়ে আছে। শ্বাশুড়ী তার ইউরিন পরীক্ষার জন্য নিলেন। পরে জানালেন যে প্রেগন্যান্সি টেস্ট নেগেটিভ এসেছে। অনেকগুলো হোমিওপ্যাথি ঔষধ দিয়ে বললেন খেতে যাতে সাইকেল রেগুলার হয়ে যায়। হচ্ছিল না বলে দু’ দফায় তাকে ঔষধ খেতে হয়েছে এবং দীর্ঘদিন ধরে ব্লিডিং হতে হতে পরে ঠিক হয়ে যায়। বহু বছর পরে হঠাৎ শ্বাশুড়ীর মুখ ফসকে বেরিয়ে যায় যে রাকীবের অসুবিধে হবে কোথা থেকে নায়লাতো প্রেগন্যান্ট হয়েছিল। (বর্তমানে রাকীবের একটু শুক্রানু সমস্যা আছে)।

রাকীব ও নায়লা আকাশ থেকে পড়ল। মা/শ্বাশুড়ী বাধ্য হলেন বলতে যে ঐ প্রেগন্যান্সি টেস্ট পজিটিভ ছিল। তিনি একটি হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষিকা।

আমি ৫ মিনিট স্তম্ভিত হয়ে রইলাম। এই নারীনিগৃহিত সমাজে পুরুষদের প্রতি আমার প্রচন্ড ক্ষোভ চুরমার হয়ে গেল এই শিক্ষিত নারীর আর এক নারীর প্রতি এই দু:সহ আচরনে।

কি চায় ছেলেদের মায়েরা? যে প্রক্রিয়ায় একটি ছেলের জন্ম সেই একই প্রক্রিয়ায় একটি মেয়েরও জন্ম। সে কথা যার ছেলে ও মেয়ে দু’টোই আছে তার চেয়ে ভাল আর কে বলতে পারবে।

তারপরেও একজন নারী যখন জামাতার শ্বাশুড়ী তখন একরূপ আর যখন বউ এর শ্বাশুড়ী তখন আর এক রূপ কেন?

বিয়ের পরে বউ যদি স্বামীর হয়ে যেতে পারে, স্বামী কেন বউ এর হয়ে যেতে পারবে না? কেন বউ এর শ্বাশুড়ী ভাববে যে ছেলে পর হয়ে গেছে বা বউ এর হয়ে গেছে।

জামাতাকে আদর যত্ন করার শানে নজুল যদি এই হয় যে মেয়ে ভাল থাকবে তাহলে ছেলের ভাল থাকার জন্য বউ এর আদর যত্ন না করে শুধু দোষ খুঁজবে কেন? একই বাড়ীতে মেয়ে জামাইকে নিয়ে রুম বন্ধ করে শুয়ে থাকলে জামাই আনন্দ পাবে, একই কাজ বউ করলে তার ছেলে আনন্দ পাবে তাতে বাঁধা কেন?

বউকে জ্বালালে বা বউ এর নামে সারাক্ষন কমপ্লেইন করলে যে ছেলে সুখী হতে পারে না এ কথা নির্বোধ শ্বাশুড়ীরা হেড মিস্ট্রেস হয়েও যদি না বুঝে আর কবে বুঝবে!!!

মায়ের জন্য প্রচন্ড ঘৃনা বুকে নিয়ে রাকীব দিন কাটাচ্ছে। আমার সামনে মায়ের এই অপকর্মের গল্প সহ্য করতে লজ্জা হবে বলে বের হয়ে গেল।

লেখকঃ চিকিৎসক ও কলামিস্ট

Comment

Comment

   
ই-মেইলঃ mohioshi@outlook.com
ফেসবুকঃ www.facebook.com/mohioshibd
মোবাইলঃ ০১৭৯৯৩১৩০৭৮, ০১৭৯৯৩১৩০৭৯
ঠিকানাঃ ১০/৮, আরামবাগ, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০
কপিরাইট ©  মহীয়সী