বৌ আসলে কি?

আলপনা তালুকদারঃ

এক অবিবাহিত বন্ধু তার এক বিবাহিত বন্ধুকে প্রশ্ন করলো, “বৌ আসলে কি?” বিবাহিত বন্ধু বলল, “বৌ হল সরকারের মত, আর স্বামী হল জনগণের মত। জনগণ পছন্দ করে সরকারকে গদিতে বসায়। সরকার একবার ক্ষমতায় গেলে ইচ্ছামত জনগণকে শোষণ করে। জনগণের টাকা লুট করে, অপচয় করে, বাইরে টাকা পাচারও করে। স্বজনপ্রীতি করে, দূর্নীতি করে, প্রাসাদ ষড়যন্ত্র করে (সন্তানদের নিয়ে)। মাঝে মাঝে জনগণকে একঘরে করে রেখে জনগণের টাকায় বিদেশ সফরে গিয়ে (বাপের বাড়ী) জনগণকে অবহেলা করে। সরকার যে যে আইন বানায়, পছন্দ না হলেও জনগণ তাইই মানতে বাধ্য হয়। প্রায়ই গ্যাস, বিদ্যুৎ, এটা সেটার দাম বাড়ানোর মত বাজারখরচ, হাতখরচ, উৎসবভাতার পরিমাণ,… বাড়ায়। মনে রাখা প্রয়োজন, জনগণই সকল ক্ষমতার উৎস – ইহা একটি মিথ, ভাঁওতাবাজি এবং ডাঁহা মিথ্যা কথা। সরকারের শুধুমাত্র নানা হীন স্বার্থ চরিতার্থ করিবার জন্যই কথাটি ব্যবহার করা হয়। আর সবচেয়ে ভয়ঙ্কর বিষয় হলো, এটা এমন একটা সরকার, যা পাঁচ বছর পর পর বদল হয় না!!!!”

মর‍্যাল অফ দ্যা স্টোরি : ইদানিং খবরে দেখতে পাচ্ছি, পুরুষরাও নাকি তাঁদের বউদের দ্বারা নির্যাতিত হচ্ছেন। কিন্তু লজ্জায় সেকথা কাউকে বলতে পারছেন না। আমি তাঁদের প্রতি পূর্ণ সমবেদনা জানাচ্ছি। কারণ এতদিন একতরফাভাবে শুধু বউ নির্যাতনের কথাই শুনে আসছিলাম। তাঁদের কারণে অন্তত ব্যতিক্রম কিছু তথ্য তো পেলাম। সেটাই বা কম কি? সেই সাথে আপনাদের জন্য পরামর্শ হলো, লজ্জা ঝেড়ে ফেলে (কেননা ওটা নারীর ভূষণ) বউদের শাস্তির দাবীতে বউ দ্বারা নির্যাতিত স্বামীরা সম্মিলিত আন্দোলন গড়ে তুলুন। স্বাধীন দেশে এহেন অনাচার মেনে নেয়া যায়না। মামলা করুন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দিন, কালো ব্যাজ ধারণ করুন, সড়ক অবরোধ ও মানববন্ধন করুন, তালাক দিন,……।

এফবিতে একটি কৌতুক দেখেছিলাম। একজন বলছে, “বৌ এমনিতে কোন কাজের জিনিস না, খুবই ফালতু, অসহ্য একটা প্রাণী। তবে ঐ বউই অতিমূল্যবান হয় তখন, যখন অন্য কেউ তার দিকে নজর দেয়!!!”

অবিবাহিত পুরুষরা বিয়ে করার আগে হাজারবার ভাবুন। কারণ একবার সরকার ক্ষমতা পেলে আর কিন্তু…..!!!!

লেখকঃ সহযোগী অধ্যাপক, আইইআর, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

Comment

Comment

   
ই-মেইলঃ mohioshi@outlook.com
ফেসবুকঃ www.facebook.com/mohioshibd
মোবাইলঃ ০১৭৯৯৩১৩০৭৮, ০১৭৯৯৩১৩০৭৯
ঠিকানাঃ ১০/৮, আরামবাগ, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০
কপিরাইট ©  মহীয়সী