অবৈধ ভালোবাসার মোহে জড়িয়ে আর কেন আত্মহনন ???

সালমা তালুকদারঃ

“ন্যায্য বিচার না পেয়ে বিষ খেলো লিমা।”ফেইসবুকে খবরটা ছড়িয়ে পরেছে।মানুষ পড়ছে,সমালোচনা করছে।কেউ কি কিছু শিখছে?বিষ খাওয়ার আগে দেশ টিভিতে একটা সাক্ষাৎকার দিয়েছে মেয়েটা।জনগনের কাছে বিচার চেয়েছে সে।কি বিচার করবে জনগন!কি বিচার আশা করে মেয়েটি?সমাজ তাকে কিভাবে সাহায্য করবে?অবাক লাগে আমার কাছে।মেয়েরা কি এখনো এরকম অসচেতনই থাকবে!আমি জানি না মেয়েটির স্বামী কে।সন্তান কে?কিন্তু ভাবছি লিমা কি তার স্বামী সন্তানের সাথে অন্যায় করেনি?তাকে নাকি কথিত কামাল নামের ছেলেটি আগের স্বামীর সাথে তালাক করিয়ে এনেছে।বুঝলাম না।তালাক করায় কেমন করে!যদি ইচ্ছে না থাকে!আমি শুধু অবাক হয়ে ভাবি এটা কেমন ভালোবাসা যে স্বামী সন্তানকে ভুলিয়ে দেয়!
সব দেখে শুনে মনে হচ্ছে ডিজিটাল যুগে মানুষের চিন্তা চেতনা সব লোপ পেয়ে গেছে।মেয়েটি বলছে তাকে নাকি কামাল নামের ছেলেটি তাবিজ করে পাগল করে ফেলেছে।তারপর সে ঘর ছেড়েছে।এটা কি ভালোবাসা?মোটেই না।এটা হচ্ছে একরকম মোহ।যে মোহ কেটে গেলে চারপাশের সব অন্ধকার হয়ে যায়।আমি একটা মেয়ে।স্বামী সোহাগিনী না হলেও আমি কিন্তু একটা ছোট্ট শিশুর জন্মদাত্রী মা।কেমন মা যে নিজের মনের খোরাকের জন্য সন্তানকে চিনি না।সন্তানকে ছেড়ে মোহের টানে অন্য কারো হাত ধরে চলে যাই!
অনেক মেয়েরা স্বামী দিয়ে সুখ পায় না।শুধু সন্তানের মুখের দিকে তাকিয়ে পুরো জীবন উৎস্বর্গ করে দেয়।আমি এই মহৎ কাজেরও পক্ষপাত করি না।কারো যদি কোনো অপশান থাকে তাহলে আমি মনে করি নিজের পেটের সন্তান নিয়ে নিরাপদে চলে যাওয়া ভালো।অপশান না থাকলেও নিজের মত করে বাঁচতে শেখা উচিৎ।পুরুষ তান্ত্রিক সমাজে মেয়েরা অনেক অসহায়।সমাজের বিধি মানতে গিয়ে বিয়ের পিঁড়িতে বসাই লাগে।কিন্তু সব বিয়ে সুখের হয় না।সেক্ষেত্রে বুঝে সিদ্ধান্ত নেয়াই ভালো।স্বামী ভালো হলে তো কথাই নেই কিন্তু খারাপ হলেই কি আর একবার কোনো পুরুষকে ভালো বাসতে হবে!সুখ কি তারপরেও ধরা দিবে?আমার নিজের মতামত হচ্ছে,”ন্যাড়া বেল তলায় একবারই যায়।”
ফেইসবুকিও প্রেম,অসম প্রেম,অন্ধ প্রেম কোনোটাই আসলে প্রেম নয়।পুরোটাই মোহ।সত্যিকারের প্রেম সহজে কারো জীবনে ধরা দেয় না।সেটা অতি দূর্লভ একটা বিষয়।সুতরাং ছেলে মেয়ে সবাইকেই বলছি।সাবধান!প্রতিটা পদক্ষেপ বুঝে শুনে ফেলতে হবে।ছোট্ট একটা জীবন।কি দরকার এত সমস্যায় জর্জরিত করার!সৃষ্টিকর্তা সবাইকেই বিবেক দিয়েছেন।এই ডিজিটাল যুগে এসে মোহের কারণে সংসার,স্ত্রী,স্বামী,সন্তান ছাড়া কি ঠিক হবে?একটু বুদ্ধি খাটিয়ে সময়গুলো সুন্দর করে অতিবাহিত করি।নিজেকে ভালোবাসি।শুধু শুধু কেন আত্মহননের পথ বেছে নেয়া? জীবনের কাছে হেড়ে যাওয়া।অথবা নিজের মূল্যবান জীবনকে নরকে পরিনত করা।কেন মনে করি না যার মোহে পরেছি সেও তো একজন মানুষ।সত্যিকার ভালোবাসায় ভালো থাকা যায়।কিন্তু মোহতে জড়িয়ে গেলে সব হাড়িয়ে যায়।তারচেয়ে জীবনের প্রতিটা ক্ষন যেন ভালো কাটে এবং সঠিক পথে অতিবাহিত হয় তার জন্য সৃষ্টিকর্তাকে বেশি করে ভালোবাসা উচিৎ।কারণ একমাত্র সেই অদৃশ্য শক্তিই আছেন যিনি প্রতিনিয়ত আমাদের ইচ্ছা পূরণ করে যাচ্ছেন এবং আমাদের সঠিক পথ দেখানোর জন্য বসেই আছেন।আমরা শুধু চাইবো তার কাছে।

 

Comment

Comment

   
ই-মেইলঃ mohioshi@outlook.com
ফেসবুকঃ www.facebook.com/mohioshibd
মোবাইলঃ ০১৭৯৯৩১৩০৭৮, ০১৭৯৯৩১৩০৭৯
ঠিকানাঃ ১০/৮, আরামবাগ, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০
কপিরাইট ©  মহীয়সী