অসফল মানুষ যেভাবে সফল হয়

রত্নম অর্জুনঃ 

কথায় আছে ” The best things usually happen when we least expect it ” মানুষের জীবনে শেষ বলে কিছু নেই। সেই জন্মের পর থেকে অদৃশ্য প্রতিযোগিতা যে শুরু হয়েছে তার শেষ অন্তত মৃত্যুর আগে সম্ভব না। এই প্রতিযোগিতায় কারো এগিয়ে যাওয়া আর পিছিয়ে পড়া সম্পূর্ণ আপেক্ষিক। কেননা যে এগিয়ে পড়েছে সে সময়ের সাথে পিছিয়ে পড়তে পারে, আর যে পিছিয়ে পড়েছিল সে এগিয়ে আসতে পারে। সব কিছুই সময়ের উপর।

একজন পিছিয়ে পড়া মানুষ পৃথিবীর কাছে সর্বদাই অবহেলিত। কারণ পৃথিবীবাসী সাফল্যহীন মানুষকে কদর করেনা। অথচ সেই মানুষ যখন একদিন বিরাট কিছু অর্জন করে তখন তাকে অবহেলা করা সেই পৃথিবীবাসীরাই তার জয়গানে মুখরিত হয়, তাকে বন্দনা করে। সাফল্য মানুষের জীবনের সমস্ত কালো অধ্যায় কে ঢেকে দেয়। গুটিকয়েক মানুষ ছাড়া বাকি সব মানুষই সফল মানুষটিকে তাদের আদর্শ বানায়। মানুষ বড় স্বার্থপর প্রাণী। তারা অতীত মনে রাখে। বর্তমানটাই তাদের কাছে মুখ্য। অতীতের সফল ব্যক্তি যদি বর্তমানে সামান্যটুকুও পিছিয়ে পড়ে , সেই সুখের পায়রা মুহূর্তেই আগ্রহ হারিয়ে নতুন কোন সফল ব্যক্তির দিকে ঝুঁকে পড়ে।

এটাই পৃথিবীর নিয়ম। এই নিয়ম ভাঙ্গতে নেই। কারণ এই নিয়ম মানুষ চেনায়, বুঝতে শিখায় । আপনার পিছিয়ে পড়াতে যেসব সুখের পায়রা আপনার থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে, সময়ের সাথে যখন সেই আপনি আগের মত সফলতার চূড়ায় উঠবেন তখন সবার আগে একে একে সব সুখের পায়রাকে ঢিল মেরে তাড়াবেন যেন তারা পুনরায় আপনার আশেপাশে ভিড়তে না পারে।

একজন পিছিয়ে পড়া মানুষের প্রতি যেহেতু বিশ্ববাসীর আগ্রহ থাকে না, সেহেতু সেই অনাগ্রহের কারণেই পিছিয়ে পড়া মানুষটি জেদ করার শক্তি পায়। আর সেই জেদ কে আত্মশক্তিতে রুপান্তরিত করে সে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করে বিশ্ববাসী কে তাক লাগিয়ে দেয়। এই জেদ, এই আত্মবিশ্বাস যুগে যুগে অনেক পিছিয়ে পড়া মানুষের পথের পাথেয় হয়েছে। নিজের উপর ভরসা রাখুন। Because, the best is yet to come.

 

লেখক রত্নম অর্জুন

লেখকঃ মেডিকেল ছাত্র, কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ

Comment

Comment

   
ই-মেইলঃ mohioshi@outlook.com
ফেসবুকঃ www.facebook.com/mohioshibd
মোবাইলঃ ০১৭৯৯৩১৩০৭৮, ০১৭৯৯৩১৩০৭৯
ঠিকানাঃ ১০/৮, আরামবাগ, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০
কপিরাইট ©  মহীয়সী