একটি বাংলা ক্ষুদে বার্তা, এক সৎ রিকশাচালক এবং এ টি এন বাংলার জ ই মামুনের আই ফোন ফিরে পাওয়ার গল্প

এটি এন বাংলার জ ই মামুন ও সৎ রিকশাচালক

জাহিদ নেওয়াজ খানঃ 
গতকাল সন্ধ্যায় অফিসে আসছি। হঠাৎ অপরিচিত একটি নম্বর থেকে ফোন। ধরবো কিনা ভাবছিলাম, কারণ অপরিচিত নম্বরের বেশিরভাগেরই নানা ধরনের অনুরোধের আসর থাকে। রাস্তায় যেহেতু ফ্রি আছি তাই ফোন ধরলাম এবং শুরুতেই উটকো প্রশ্ন: ভাই, আপনি কে?
— আমি কে না জেনেই ফোন দিয়েছেন? কাকে চাচ্ছেন?
— আপনাকেই, যদিও আপনাকে চিনি না।
— বিষয় কী ভাই?
— এক রিকশাঅলা একটা ফোন পেয়েছে, সেখানে আপনার একটা মেসেজ। যদি আপনি হেল্প করতে পারেন।
— ওই ফোন থেকে ফোন দেন, যদি নাম ভাসে তাহলে বুঝতে পারবো।
— সেটাই তো সমস্যা ভাই। ফোনটা আনলক করা যাচ্ছে না। স্ক্রিনে আপনার একটা বাংলা মেসেজ ভাসছে, আজ দুপুর ১টার দিকে পাঠিয়েছেন।
মুহূর্তেই আমি সম্ভাব্য শর্টলিস্ট করে ফেলতে পারলাম। কারণ, দুপুরে আমি অামাদের অনলাইনের একটি বিষয়ে কয়েকটা টেলিভিশন চ্যানেলের কয়েকজন হর্তাকর্তাকে একটা টেক্সট পাঠিয়েছিলাম। নিশ্চয়ই তাদের কারো ফোনসেট হবে।
ওই ভদ্রলোককে বললাম, কয়েক মিনিট পর অাপনাকে জানাচ্ছি যে কার ফোন কিংবা যার ফোনসেট তাকে আপনার নম্বরে যোগাযোগ করতে বলছি। তিনি একটু দ্রুত যোগাযোগ করার অনুরোধ জানিয়ে বললেন, রিকশাঅলা ফোনটা নিয়ে খুব পেরেশানিতে আছে।
অফিসে ঢুকতে ঢুকতে ফেসবুকে একটা সাময়িক পোস্ট দিলাম: কোন টেলিভিশন চ্যানেলের কোন সিএনই বা বার্তা প্রধান কি ফোনসেট হারিয়েছেন? এক রিকশাচালক একটি ফোন সেট পেয়েছেন।
নিউজরুমে ঢুকতে ঢুকতে কয়েকজন সাংবাদিক যারা অতীতে ফোনসেট হারিয়েছেন তারা অামাকে নক করলেন। তবে, আমি বুঝতে পারছি ফোনসেটটা তাদের কারো নয়। তাদের কাউকে আমি ওই মেসেজটি পাঠাইনি।
এর মধ্যে চকোর মালিথা বললেন, যাদেরকে মেসেজ পাঠিয়েছেন তাদেরকে ফোন করতে থাকেন। যারা ফোনসেটটি পেয়েছে তারা ফোন ধরলে বুঝতে পারবেন কার ফোনসেট?
যেখানে ফোনসেটটি পাওয়া গেছে বলে রিকশাচালক এবং ওই ভদ্রলোক জানিয়েছেন তাতে শর্টলিস্টের একদম উপরে রাখলাম একজনকে। ফোন দিলাম ওই নম্বরে। সেই ভদ্রলোক যখন ফোনটি ধরলেন তখন আমার মনিটরে ভাসছে মামুন.এটিএন বাংলা। তাকে বললাম, ফোনটি এটিএন বাংলার জ.ই মামুনের, এখনই যোগাযোগ করবেন আপনার সঙ্গে।
এর মধ্যে চকোর পিএবিএক্সে এটিএনে জ.ই মামুনকে ধরতে বললেন, আর মাসুম ফোন দিলো এটিএন বাংলার মাহমুদুর রহমানকে। তার ফোনে জ.ই মামুনকে জানালাম, আপনার ফোন পাওয়া গেছে, এই নম্বরে ফোন দিয়ে যোগাযোগ করেন।
ততোক্ষণে আরো কয়েকজন ফোন হারানো সাংবাদিক যেহেতু ফোন করছেেন তাই ফেসবুকে আরেকটি সাময়িক পোস্ট দিলাম: রিকশাচালক যে ফোনটি পেয়েছেন সেটি এটিএন বাংলার জ.ই মামুনের।
এরপর নিউজে ব্যস্ত হয়ে গেলাম। মামুন ভাই ফোন পেলেন কিনা নিশ্চিত হওয়ার জন্য পরে রাতে একবার ফোন দিলাম তার নম্বরে। কিন্তু ফোনটি তখন বন্ধ। কোন গণ্ডগোল হলো কিনা একটু ভাবছিলাম, অবশ্য এও মনে হলো, মামুন ভাই-ই হয়তো তিনি বুঝে না পাওয়া পর্যন্ত ফোনসেটটি বন্ধ রাখতে বলেছেন।
আসলেই তাই। আজ সকালে জ.ই মামুন ফোন করে জানালেন, অফিসের কাজ শেষ করে বেশ রাত করে তিনি রায়ের বাজারের টালি অফিসের কাছে এক রিকশা গ্যারেজ থেকে ফোনটি বুঝে পেয়েছেন। তিনি ফোনটি হারিয়েছিলেন আগের রাতে। রিকশাচালক ফোনটি পেয়ে কোথায় কীভাবে পৌঁছাবেন এ নিয়ে সারাদিন পেরেশানিতে ছিলেন। পরে একজনের কাছে নিয়ে যাওয়াতে তিনি বাংলায় লেখা একটি ক্ষুদে বার্তা থেকে ফোনসেটের সম্ভাব্য মালিকের পরিচয় একটু আঁচ করতে পেরেছিলেন।
সৎ সেই রিকশাচালকের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশের পাশাপাশি বাংলা ক্ষুদে বার্তার জন্যও ধন্যবাদ জানিয়েছেন জ.ই মামুন।

লেখক জাহিদ নেওয়াজ খান

লেখকঃ সম্পাদক, চ্যানেল আই অনলাইন

 

 

 

 

 

 

 

 

 

এটি এন বাংলার জ ই মামুন এর লেখাটি-

http://www.mohioshi.com/2018/02/12/%E0%A6%8F%E0%A6%95%E0%A6%9F%E0%A6%BF-%E0%A6%B9%E0%A6%BE%E0%A6%B0%E0%A6%BE%E0%A6%A8%E0%A7%8B-%E0%A6%86%E0%A6%87%E0%A6%AB%E0%A7%8B%E0%A6%A8-%E0%A6%AB%E0%A6%BF%E0%A6%B0%E0%A7%87-%E0%A6%AA%E0%A6%BE/

Comment

Comment

   
ই-মেইলঃ mohioshi@outlook.com
ফেসবুকঃ www.facebook.com/mohioshibd
মোবাইলঃ ০১৭৯৯৩১৩০৭৮, ০১৭৯৯৩১৩০৭৯
ঠিকানাঃ ১০/৮, আরামবাগ, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০
কপিরাইট ©  মহীয়সী