কালের ভাবনা- মোঃ মশিউর রহমান ভূঁইয়া

আমাদের সমাজ ব্যবস্থায় মূল্যবোধের অবক্ষয় যে কি চরম পর্যায়ে পৌঁচেছে তার একটা নমুনা গতকাল স্বচক্ষে প্রত্যক্ষ করলাম।যুব সমাজের লাজ লজ্জা যে কতটা নিচে নেমে গেছে তা না দেখলে বলে বোঝাতে পারবোনা।
আমি সস্ত্রীক কুমিল্লার উদ্দেশ্যে কমলাপুর থেকে রয়েল এয়ারকনের একটা বাসে উঠলাম।বাস ছেড়ে যাবার একটু পর পেছনের সিটে বসা এক তরুণীর উত্তেজিত কণ্ঠস্বর কানে এলো।প্রথমে ভাবলাম সেলফোনে বুঝি কারো সাথে ঝগড়া করছে।কিন্তু না একটু পর নিচু স্বরের পুরুষ কন্ঠও কানে আসলো।মূলত পুরুষটি উত্তেজিত তরুণীকে নিবৃত্ত করার চেষ্টা করছিল বোঝা গেলো।কারো ব্যক্তিগত বিষয়ে কোন কালেই উৎসাহ উদ্দীপনা ছিলনা।তাই নিজের কাজে মনযোগ দিলাম।কিন্তু পরক্ষণেই আবারো পূর্বাপেক্ষা অধিক উত্তেজিত স্বরে তরুণী চিৎকার করে উঠলো।এবার বাসের সকল যাত্রী তাদের দিকে তাকালো। কেউ কোন কিছু বলছেনা।তরুণী উচ্চস্বরেই পাশে বসা তরুণকে উদ্দেশ্য করে সব কথা বলে যাচ্ছিল।তরুণীর কথায় বোঝা গেলো তারা স্বামী স্ত্রী।স্বামীটি বেকার। উপরন্ত সে ঘরে বউ থাকা অবস্থায়ও পরকীয়ায় জড়িত। এভাবে আর চলতে দেয়া যায়না। তরুণীটি ডিভোর্স চায়।এই নিয়েই মূলত তাদের ঝগড়া বলে আমার কাছে মনে হয়েছে।আমি যেভাবে লিখলাম এভাবে যদি হতো উত্তেজিত কন্ঠে হলেও তা মেনে নেয়া হয়তো যেত।কিন্তু না ছেলেটি যখনই মেয়াটিকে বোঝাতে যায় তখনই মেয়েটি চিৎকার করে তার পরকীয়া প্রেমের বর্ণনা এমনভাবে দিয়ে যাচ্ছিল তা শুনে কানে তালা লাগার জোগাড়।বাসে নারী পুরুষ ছেলে বুড়ো সব ধরণের যাত্রীই ছিল।কেউ কেউ অস্ফুটে বিরক্তি প্রকাশ করছিল। কিন্তু কে শোনে কার কথা।ঝগড়া চলছে তো চলছে। আমি এক পর্যায়ে সুপারভাইজরের দৃষ্টি আকর্ষণ করলে সে জানালো তারা কাউন্টার থেকেই ঝগড়া করে আসছিল।
হতে পারে মেয়েটি প্রতারণার স্বীকার।ছেলেটি তাকে প্রতারণার জালে ফেলে বিয়ে করেছে। কষ্টের জ্বালা সইতে না পেরে এধরণের আচরণ করছে।কিন্তু যত কিছুই হোক তাই বলে এভাবে লাজ লজ্জার মাথা খেয়ে ভরা বাসে এতগুলো মানুষের সামনে? বাড়ীর ঝগড়া গাড়ীতে? আসলে আমাদের যুবসমাজের ভেতর একটা ডেমকেয়ার ভাব এসে গেছে।তারা যা ইচ্ছে তাই করতে একটুও দ্বিধা করেনা। কে কি ভাবলো তাতে তাদের কিছুই যায় আসেনা।অথচ আমাদের সময়ে? আমরা এধরনের আচরনতো দুরের কথা জোরে কথা বলতেও সাহস করতামনা।
জানিনা আমরা কোথায় চলেছি।কোন অন্ধকার গহ্বরের পানে ছুটে চলেছে আমাদের সমাজ। কি হবে আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মের?

Comment

Comment

   
ই-মেইলঃ mohioshi@outlook.com
ফেসবুকঃ www.facebook.com/mohioshibd
মোবাইলঃ ০১৭৯৯৩১৩০৭৮, ০১৭৯৯৩১৩০৭৯
ঠিকানাঃ ১০/৮, আরামবাগ, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০
কপিরাইট ©  মহীয়সী