আমরা আশাবাদী

– নুরে আলম মুকতা

গত ০৫ নভেম্বর আমাদের সরকার,ভারতীয় সিরাম ইনস্টিটিউট (SII) আর বেক্সিমকো ফার্মার সাথে একটি ত্রিদেশীয় চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে ভারতের পুনে কেন্দ্রিক প্রতিষ্ঠান কোভিড-১৯ এর টিকা উৎপাদনে কাজ করছে অনেক আগে থেকে। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন অস্ট্রাজেনকা ChAdOxI nCov-19 মরণঘাতি কোভিড -১৯ এর বিরুদ্ধে লড়াই করে চলেছে নিরলস ভাবে। এ টিকাটি সারা বিশ্বের টিকা আবিস্কারের দৌড়ে অনেক এগিয়ে আছে। টিকাটি চূড়ান্ত অনুমোদন পাবে শীঘ্রই। মানব শরীরে ট্রায়ালও প্রায় শেষ ধাপে। বেশ কয়েকটি দেশে চলছে এর চূড়ান্ত পর্বের ট্রায়াল। আমরা দারুন আশাবাদি আমাদের সরকার MoU (Trillateral memorendum of understanding চুক্তি ইতিমধ্যে সম্পন্ন করেছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদন হবার সাথে সাথে আমরা এ চুক্তির আওতায় টিকাটি পেয়ে যাবো। টিকা সংরক্ষণ আর বিতরণের জন্য রয়েছে আমাদের দক্ষ আর প্রশিক্ষিত জনবল। EPI (Expanded Programme of Immunization) আমাদের দেশের সফলতম একটি সরকারি কর্মপরিকল্পনা। এর আওতায় যে কোন টিকা সারা দেশে সুষ্ঠুভাবে সংরক্ষণ আর বিতরণ সম্ভব। এত চমৎকার অবকাঠামো অনেক দেশের নেই। আমাদের আছে। টিকা সংরক্ষণের জন্য ২ থেকে ৮ ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রার স্টোরেজ আমাদের EPI এর রয়েছে। আমাদের সরকারি সুত্র জানিয়েছে এ টিকাটি পেয়ে গেলে স্বাস্থ্য বিভাগের সম্মুখ যোদ্ধা আর ৬৫ বা তদুর্ধ লোকজনকে দেয়া হবে শুরুতে। প্রাথমিক ভাবে টিকাটির আওতায় প্রায় দেড়কোটি লোক আসবে। বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস প্রথমত টিকাটি কিনে নেবে প্রতিটি এ্যাম্পুল ৪ ডলারে আর সরকারের কাছে বিক্রি করবে ৫ ডলারে। এটি উৎপাদন শুরু হলে প্রতি মাসে ৫০ লাখ ডোজ করে আমাদের দেশে আসবে। চুক্তি অনুযায়ী আমরা তিনকোটি ডোজ পাবো। আমরা আশা করছি কোভিশিল্ড আর অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের আওতায় অস্ট্রাজেনকা সফল হবে। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বলছে এটি চলতি বছরের ডিসেম্বরের মধ্যেই প্রস্তুত হয়ে যাবে আর আগামী বছরের প্রথমার্ধে বা তারও আগে পূর্ণ উৎপাদনে সক্ষম হবে। ইন্ডিয়ান টাইমস জানিয়েছে কোভিড-১৯ টিকা উৎপাদনের জন্য গঠিত এলায়েন্স বিল এ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন যৌথভাবে কাজ করছে। আমরা আমাদের সরকারের প্রচেষ্টাকে সাধুবাদ জানাই। প্রার্থনা করি কোভিড-১৯ এর প্রতিষেধক আবিষ্কারক সকলেই সফল হোন। বিশ্ব বেঁচে যাক একটি ভয়ানক অদৃশ্য শত্রুর হাত থেকে।

(তথ্য সূত্রঃ The Daily Star,Friday-06)

নুরে আলম মুকতা কবি, সাহিত্যিক, অনুবাদক ও সহ-সম্পাদক, মহীয়সী।

আরও পড়ুন