স্মৃতিতে মা

ফারহানা শরমীন জেনীঃ

স্নেহময়ী মা আমার
সুযোগ নেই আর তোমাকে ডাকার।
তুমি আজ দূর আকাশের তারা
তাইত আমি প্রতিনিয়ত হচ্ছি দিশেহারা!!

আমার জন্মস্থানে গেলে
কঙ্কণ পড়া হাত বাড়িয়ে
দৃষ্টিহীন নেত্রে অনুভব কুড়িয়ে
কেউ আর না বলে-এলে!!!
ছেলেমেয়ে গুলো কি এসেছে সাথে??
হাতটা বাড়িয়ে একটু স্পর্শ
কোথাও খুঁজে পায়না মমতার পরশ!!

শূন্য ঘরটায় ঢুকি;কান পেতে শুনি
অনুভব করি তোমার মধুর কণ্ঠধ্বনি!!
হঠাৎ অনুভব শূন্য সকল
দূরে কোথাও কাঁদছে শঙ্খচিল!!
না!না!অসীম শূন্যতা হাহাকার
দৌড়ে বেড়িয়ে শূন্য পথে ছুটি আবার!!

আজও সেই ছেলেবেলার মতো
তোমার রেখে যাওয়া শাড়ি যত
তার ঘ্রাণের মাঝেই পেতে চাই
খুঁজে মাগো তোমাকেই!!

এখনও ক্লান্ত দুপুর অথবা বিষন্ন বিকেলে
মুঠোফোনের ঝংকারে চমকিত হয়ে
ভাবি, হয়তো তুমি খুঁজছো আমায়
রোজকার অভ্যাসটায়!

সম্বিত ফিরে পেয়ে দেখি
কপোল বেয়ে ঝড়ছে বারি।
তখনই ছুটে যায় ইবাদতে
বলি সৃষ্টিকর্তাকে,পরপারে
যেন অনুমতি দেন খুশি হয়ে
থাকতে তুমি আর আমি একসাথে!!

লেখকঃ কবি, সাহিত্যিক ও সহ-সম্পাদক, মহীয়সী

আরও পড়ুন