মুভি রিভিউঃ সম্পর্কের টানাপোড়েন ও স্মৃতির নয়া সমীকরণ “রবিবার”

মাসুদুল  হাসান রনি

হোম কোয়ারান্টাইনের তিপান্নতম রাতে দেখলাম “রবিবার”।অতনু ঘোষের সিনেমাটির মধ্যদিয়ে জয়া আহসান ও প্রসেনজিৎ একসাথে প্রথমবার পর্দায় হাজির হয়েছিলেন। রবিবার দেখে মনে হলে পর্দায় দু’জনের কেমেস্ট্রি শুরুর জন্য যর্থাথই ছিল। তাদের রসায়নের সামান্য ঝলকেই প্রমাণ মিলল রবিবারে। ২০১৯ সালে এ সিনেমাটি মুক্তি পায়।

কাহিনী এগিয়েছে অসীমাভ ও সায়নীর ভেঙে যাওয়া সম্পর্কের টানাপোড়েন ও স্মৃতির নয়া সমীকরণের মধ্যদিয়ে। শুরুতে দেখা যায়, বছর পনেরো পর হঠাৎ এক রবিবারে দেখা হয় তাদের। বিষন্ন, মন কেমন করার মাঝে পুরনো স্মৃতিরা ভিড় করে আসে। একসময় তাদের রবিবার ছিল একসঙ্গে থাকা,আড্ডা, খাওয়া-দাওয়া। মন খারাপ, মান-অভিমান ভুলে নতুন করে শুরু করার প্রচেস্টা। তাদের সম্পর্ক যা দাম্পত্যের চেহারা নিয়ে বেঁচে ছিল, তা ভেঙে পড়ে ব্যক্তিত্বের সংঘাতে কিংবা দু’জনের জীবনভাবনা দুই বিপ্রতীপ মেরুতে অবস্থান করার কারণে।

আবার হঠাৎ অসীমাভ একটা পরিকল্পনা করে সায়নীর সঙ্গে কয়েক ঘণ্টা সময় কাটাবে বলে। সেই সময়, ভবিষ্যৎ হয়তো একদম অন্ধকার, অসীমাভ তাই মরিয়া হয়ে আটকে রাখতে চায় সায়নীকে, যতটা সম্ভব। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ভেংগে যাওয়া সম্পর্কের পরিনতি কি?

দর্শককে ভাবনায় ফেলে কাহিনীর যে কোনও পরিণতির থেকেই দূরে রেখে এমনই এক সম্পর্কের কাহিনি পর্দায় তুলে এনেছেন পরিচালক অতনু ঘোষ। অথচ তারা দু’জন একসঙ্গে থাকতে পারবে না, আবার আলাদা হয়ে যাওয়াটাও তাদের পক্ষে সম্ভব নয়। ঘৃণা, প্রেম ও প্রতারণার মিশেলে তাদের সম্পর্ক বন্ধুর অথচ অটল। নাগরিক জীবনে নর-নারীর সম্পর্ক কি জঠিল, মনস্তাত্ত্বিক দ্বন্ধের, রবিবার যেন একটু হলেও ভাবায়।

জয়া আহসান বরাবরের মতন সুভিনয়ের স্বাক্ষর রেখেছেন। কোথাও তার নমনীয়তা, কোথাও তার রিভোল্ট, ভেংগে পড়ার আগে জেগে উঠার চেষ্টায় চরিত্রটিকে ফুটিয়ে তুলতে দারুন অভিনয় করেছেন। বিচ্ছেদে বিধ্বস্ত আবার সায়ানীকে আঁকড়ে নতুন করে বাঁচার প্রানান্তকর চেষ্টা – এসব মিলিয়ে প্রসেনজিত তাঁর আসীমাভের চরিত্রটিকে দারুনভাবে ফুটিয়ে তুলেছেন।

সিনেমাটোগ্রাফি, রাতের কিছু দৃশ্যে লো লাইটের ব্যবহার ভাল। কিন্তু দু’এক জায়গায় বিশেষত ক্লাব ও পেট্রোল পাম্পের শটে ক্যামেরা ঝাপসা দৃষ্টিকটু লেগেছে। অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন সুদীপা বসু, তথাগত বন্দোপাধ্যায়, মিথুন দেবনাথ, সস্বতী সিনহা এবং শ্রীজাত বন্দ্যোপাধ্যায়।

লেখকঃ জাতীয় পত্রিকার মুভি রিভিউ লেখক ও কলামিস্ট

 

আরও পড়ুন