বুক রিভিউঃ আব্দুল মুত্তালিবের সাহসী জীবনের গল্প “পিতামহ”

তাহনিয়া ইসলাম

বইয়ের নাম : পিতামহ
লেখক : সাব্বির জাদিদ

বহু বহু বছর পর একটা বই পড়লাম একদম ছোটবেলার মত। ছোটবেলায় যখন কোনো বই পড়তাম, তখন নাওয়াখাওয়ার সময় নাই, বইয়ের ভিতর ডুব দিতাম। শুধু যেটা খুব জরুরী সেটা করেই আবার বইয়ে ডুব দিতাম। বড়বেলায় এটা করার সুযোগ কম। জরুরী কাজের সংখ্যা এতো বেশী যে, বইয়ে ডুব দিতে দিতেই আবার মাথা উঠিয়ে কাজ শেষ করতে হয়। তবে এই বইয়ের ভিতর ডুব দিয়ে আর মাথা উঠাতে পারিনি। প্রতিটি পাতা চুম্বকের মতো আটকে রেখেছিল আমাকে। এই ব্যস্ত জীবনে, মাত্র দুই দিনের মাথায় ৫২৪ পৃষ্ঠার বই আমি কিভাবে শেষ করলাম জানি না।

বইয়ের খোঁজ পেয়েছি ফেইসবুকে। লেখকের নাম জীবনে প্রথম শুনলাম। এরপর রকমারিতে ঢু মেরে একটা পৃষ্ঠা পড়ে ভালোই লাগলো। বই অর্ডার দিয়ে যখন হাতে পেলাম, অর্পণ এর লেখাটা পড়েই চমকে গেলাম। মন ভালো হয়ে গেলো।

আব্দুল মোত্তালিবের মত ৩০ পৃষ্ঠার পর থেকেই আমার ধৈর্যের পরীক্ষা শুরু হয়েছিল। শুধু মনে হচ্ছিল, এরপরে কি হবে, তারপরে কি হবে। অনেক জানা ঘটনা গুলো আবারও যখন উপন্যাসের আলোকে জেনেছি, তখন ভালোই লাগছিল। মক্কা মদিনার প্রতি আমার আলাদা টান আছে। সেখানে কি হয় বা কি হয়েছিল, সেসব জানার আগ্রহ আমার সবসময়। উপন্যাসের মাধ্যমে অন্ধকারাচ্ছন্ন আরবের সমাজকে নিজের চোখের সামনে দেখতে পেয়েছি। লেখক আমাকে সেই সময়ে দাড় করিয়ে দিয়েছিলেন, মনে হচ্ছিল আমার চোখের সামনেই সব ঘটনাগুলো ঘটছে।

আব্দুল মোত্তালিবের জমজম কুয়ার আবিষ্কারের স্বপ্ন, এরপর সেই কুয়া নিজের আয়ত্তে আনার জন্য মরুভূমির পথে মরতে মরতেও উনার অলৌকিক ভাবে বেঁচে যাওয়া, কায়েস আর হুমায়রার মৃত্যু, আবরাহা কিভাবে সম্রাট হলো, তালহার কষ্টের জীবনের ঘটনা পড়তে পড়তে মনে হচ্ছিল, কেনো শেষ হয়ে গেল বইটা। আরেকটু না হয় লিখতো।

সবশেষে বলবো, বইটার দাম একটু বেশী। তবে নিজস্ব লাইব্রেরিতে বইটা জায়গা করার অধিকার রাখে। সুনীলের ‘সেই সময়’ আর হুমায়ুনের ‘ জোছনা ও জননীর গল্প’ পড়ে যেমন তৃপ্তি পেয়েছিলাম, ‘পিতামহ’ পড়ে আমি তেমন তৃপ্তি পেয়েছি।

আরও পড়ুন