বুক রিভিউঃ বেলা ফুরাবার আগে

সুমাইয়া সুলতানাঃ

যদিও বইটি পড়া আরও আগে শেষ কিন্তু আজকে রিভিউ লিখছি।আমরা যারা জন্মগত বা বংশগত ভাবে মুসলিম,শুধু জানি আমার ধর্মের নাম ইসলাম কিন্তু জানি না কি বলে আমার ধর্ম,কি আদেশ আছে আর কি নিষেধ আছে এই ধর্মে কিংবা জানলেও পূর্নাঙ্গ ভাবে জানি না কিংবা পূর্নাঙ্গ ভাবে জানলেও তা মেনে চলতে পারি না তদের জন্য এই বইটি।একজন জন্মগত ভাবে হয়ে ওঠা মুসলিম কে প্রকৃত মুসলিম হয়ে উঠতে উৎসাহ দিবে বইটি।
বইটির প্রতিটি অধ্যায় সাজানো হয়েছে ইসলামের একদম মূল বিষয়গুলো নিয়ে আর লেখক আরিফ আজাদ (আল্লাহ তাকে উত্তম প্রতিদান দিক) ভাইয়ের কলমের জাদুতে তা হয়ে উঠেছে আরও হৃদয়স্পর্শী।
তার লেখা প্যারাডক্সিকাল সাজিদ পড়েই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম তার লেখা সব বইই পড়বো ইনশাআল্লাহ।

বইটির প্রতিটি পরতে পরতে দেয়া আছে মহান আল্লাহর বান্দা হিসেবে এবং শ্রেষ্ঠ নবী হযরত মুহাম্মদ (সা) এর উম্মত হিসেবে একজন মুসলিম এর চরিত্র কেমন হওয়া উচিৎ। কোন কাজগুলো তার করা উচিৎ আর কোন কোন কাজগুলো তার বর্জন করা উচিৎ। বিশেষ করে আমাদের মত তরুণ প্রজন্মের জন্য বইটা খুবই উপকারী এবং আবশ্যক বলবো আমি।আমরা জানিই না আমরা নির্দিধায়, মনে কোনো সংকোচ ছাড়া যেসব কাজ করছি তা হালাল নাকি হারাম।ইসলামে এই কাজগুলোর অনুমতি আছে নাকি নেই।যাকে বন্ধু/বান্ধবী ভেবে ইয়ার্কি-ঠাট্টা করে কখনো কখনো স্পর্শও করে ফেলছি সে আমার জন্য মাহরাম নাকি নন-মাহরাম।দৃষ্টিশক্তির মত এত বড় একটি নেয়ামত পেয়ে তার অপব্যবহারও করে ফেলছি প্রতিনিয়ত।গান-বাজনা,নাটক,সিনেমা,সেলিব্রেটি ইত্যাদি নিয়ে মেতে থাকছি সবসময়  অথচ দ্বীন পালনে যত অবহেলা।পর্দা নিয়েও আজ আমরা গাফেল।আল্লাহর সাথে যে অনেকখানি দূরত্ব তৈরী হয়ে যাচ্ছে সেইটুকু বুঝতে পারার মত বোধশক্তিও হারিয়ে ফেলেছি আজ।দুনিয়াবি জীবন নিয়ে প্রতিযোগিতায় ডুবে থেকে সেই রব কে ভুলে যাচ্ছি যেই রব এর সামনে সকলকেই একদিন ফিরে যেতেই হবে।
“মানুষের হিসেব-নিকেশের সময় আসন্ন।অথচ তারা উদাসীনতায় মুখ ফিরিয়ে রেখেছে।”
(সূরা আম্বিয়া,আয়াত:১)
আয়াত টার সাথে যেন নিজেদের মিল খুঁজে পাচ্ছি।
বইটির প্রতিটি অধ্যায়ে যেই টপিক এবং যেইসব কুরআনের আয়াত আর হাদিসের উদ্ধৃতি দেয়া হয়েছে আল্লাহর রহমতে আমি আগে থেকেই অধিকাংশই জানি এবং চেষ্টা করি মেনে চলার।অনেক কিছুই যা ইসলামে নিষেধ তা ছেড়ে দিয়েছি।তবে এখনো পূর্নাঙ্গভাবে সব মেনে চলতে পারি না।অনেক সময় শয়তানের ধোকায় পড়ে যাই।কিন্তু এই অবস্থা থেকে বের হয়ে আসতে চাই।বইটি আমার জন্য পূর্নাঙ্গভাবে ফিরে আসতে সুন্দর একটা রিমাইন্ডার হিসেবে কাজ করেছে।অনেক উৎসাহ, অনেক অনুপ্রেরণা পেয়েছি।
ফুযাইল ইবনু ইয়াজ রাহিমাহুল্লাহর জীবন বদলে দিয়েছিলো যেই আয়াত সেই আয়াত টা এখানে যোগ করতে খুব ইচ্ছা হচ্ছে,
“যারা ঈমান এনেছে তাদের হৃদয় কি আল্লাহর স্মরণে  এবং যে সত্য নাযিল হয়েছে তাতে বিগলিত হওয়ার সময় হয়নি?”
(সূরা হাদিদ,আয়াতঃ১৬)
আল্লাহ সুবহানাহু ওয়াতাআ’লা এখানে আমাদের কত দরদ ভরা সুরে আমাদের সতর্ক করছেন,আহবান করছেন তার দিকে প্রত্যাবর্তন করার জন্য।এরপরেও কি গাফেল থাকার সু্যোগ আছে??
জীবনের বেলা ফুরাবার আগে, চলুন তবে প্রত্যাবর্তন করি।নিজেকে আবিষ্কার করি নতুন আরেক পৃথিবীতে……

বইঃবেলা ফুরাবার আগে
লেখকঃআরিফ আজাদ
পৃষ্ঠাঃ১৮৭
প্রকাশনীঃসমকালীন প্রকাশন
মূল্যঃ২৩০টাকা

আরও পড়ুন