কল্পিত কল্পনায়

হেসো না… কোন একদিন দেখবে কলিংবেলের শব্দ!

দরজা খুলে চমকে যাবে
এই আমাকে দেখে।
হাসতে ভুলে যাবে।
বুক ধুকপুক করবে ‘
চোখের পাতা পড়বে না।
আমার গন্ধ তোমাকে ভিষণ ভাবে এলোমেলো করে দিবে!

এসবকিছুর তোয়াক্কা না করে কোনদিকে না তাকিয়ে হুড়মুড় করে প্রবেশ করবো তোমার ঘরে।
বলবো?
উফ! প্রচন্ড পিপাসা।
ঠান্ডা শীতল এক গ্লাস পানি দাও।
আর চলো বেরিয়ে পড়ি নিরুদ্দেশে
কিছুটা সময়ের জন্য।

তুমি কিন্তু অবশ্যই পড়বে আমার প্রিয় নীল শাড়িটা, চোখে কাজল, বড় একটা বিশাল নীল টিপ।
হাত ভর্তি চুড়ি আমার চাই চাই…
আর ঠোঁটদুটো হোক রক্ত জবা!

যেনো আকাশ আর সমুদ্রের সহাবস্থান
হোক না কিছু এলোমেলো অনুভূতির খেলা।
কেমন হবে বলো ত?

ঘুরতে ঘুরতে একদিন ঠিক তোমার শহরে যাবো৷
রিকশায় তোমার খোলা চুলের এলোমেলো ঢেউয়ের ঝাপটা এসে পড়বে আমার বুকে,
আমি তলিয়ে যাবো গভীর সমুদ্রের অতলে।

অদ্ভুত এক অনুভুতি নিয়ে তোমার পাশে আমি
কিছুটা সময়, বন্দী হবো
মধ্য দুপুরের তপ্ত ভালবাসায়।।

 

লেখকঃ সোহানা চৌধুরী

আরও পড়ুন