কাঙ্খিত অনাকাঙ্খিত

 

দুলিয়া গোলাপ ডাকিছে তোমায়
লভিতে তাহার শোভা।
গোলাপের মোহে মাতাল হয়ে
ভুলিলে কণ্টকের কথা।
পর্শিতে গোলাপ পাইলে তুমি
শুধুই কাঁটার ব্যথা।

ছুটিছে ঐরাবত ওষধি পানে
ভক্ষিবে তাহা ক্ষুধা নিবারণে।
দ্যাখে নাই শিকারির ফাঁদ
গর্তে পড়িয়া বিশালদেহী
হইলো কুপোকাত।

কমল তোমারে ডাকিছে বারে বারে
কমলের মোহে আত্মভুলে
লম্ফ দিলে জলে।
কমল তুমি পারিলে না লভিতে
লভিলে সমাধি সলিলে।

তৃষ্ণা মিটাইবারে
পানি পাইবার আশে
ছুটিলে তুমি মরীচিকার পিছে।
মরীচিকা তোমায় দিয়াছে ধোঁকা
মরুর বুকে বানাইয়াছে বোকা।

কাঙ্খিতের মাঝে বসত করে অনাকাঙ্খিত যতো
কাঙ্খিত লভিতে থাকিয়ো চেতন
হইয়োনা আত্মভোলা।
নচেত কাঙ্খিতের দ্যাখা পাবে নাকো তুমি
লভিবে শুধুই জ্বালা।

লেখকঃ মোহাম্মদ শাহজালাল, কবি ও সাহিত্যিক।

আরও পড়ুন