বিরহের দহনে বসন্ত ভাবনা

 

চারদিকে উৎসব আয়োজন
ষোড়শী তনুমনে রঙের আগুন,
দাঁড়াই যখন দখিনের জানালায়
কান ঘেষে চুপি চুপি বলে দখিনা বাতাস
বসন্ত এসে গেছে…
তোমাকে খুঁজে আমার বিমূর্ত নয়ন!

প্রকৃতির বৈরিতায় শীতের বিবস্ত্র বৃক্ষেও
অবিরাম আনন্দ উল্লাস
সাজবে নতুন আঙ্গিকে বাহারি রঙ মেখে
মৌ মৌ সুঘ্রাণে মুখরিত আম্রকানন
পত্র-পল্লবে ঐশ্বরিক সৌন্দর্যের আভাস
বসন্ত এসে গেছে…
তোমায় না পেয়ে আঁকড়ে ধরে বুকের বামপাশ!

বনে বনে ভ্রমরের গুঞ্জন
পুষ্প কলিতে রঙের বাহার
ফুলে ফুলে প্রেম আলাপন,
দলে দলে ভ্রমর এসে
রেণুতে মুখ গুঁজে দেয় সোহাগী চুম্বন
মধু আহরণে ভ্রমর ব্যস্ত এখন
বসন্ত এসে গেছে…
তুমি বিহীন জীবন,খরায় পুড়ে সবুজ মনান্তর বিবর্ণ এখন!

এখন আমার আর কোন ঋতুতেই ভেদাভেদ নেই
কেড়ে নিয়েছে সব রঙ অদৃশ্য করোনায়!
ফাগুন হাওয়ায় স্পর্শ পাই তোমার ভালোবাসার
ফাগুন ফিরে আসুক বারবার,
তুমি বসন্তের বাউরি বাতাস হয়ে এসো
আমি ফাগুনের আগুনে পুড়ে ধূপধোঁয়া হয়ে
দু’জনে মিলেমিশে হবো একাকার।

লেখকঃ শাহনাজ পারভীন সানি, কবি ও সাহিত্যিক।

আরও পড়ুন