বুঝবে কবে…?

বিষ্ণুপদ বিশ্বাস

রবিবারের সকালবেলা গভীর রাতে শোয়া,
কেষ্টপুরের আকাশ ঢাকে ঘনকালো ধোঁয়া!
বিলাসী বাড়িতে আগুন লেগেছে দ্বিতলে,
প্রতিবেশী দেখেই খবর দিয়েছে দমকলে।
খবর পেয়ে সাথে সাথেই ছুটে এলো তারা,
বদ্ধ ঘরে ধোঁয়ার জন্যেই মালিক জ্ঞানহারা!
জল ছিঁটিয়ে দুয়ার ভেঙে দেখল ঢুকে ঘরে,
অর্ধদগ্ধ একটা মানুষ মেঝের মধ্যে পড়ে!
তখনও প্রাণ ছিল দেহে যাচ্ছিল তা বোঝা,
নিয়ে গেল সাথে সাথে হাসপাতালে সোজা।
মানুষটা কে পাঠকবৃন্দ এবার প্রকাশ করি,
ভারতখ্যাত ”জ্যোতিষ সম্রাট” জয়ন্ত শাস্ত্রী!
একটুখানি আশা ছিলো বাঁচাতে তাই প্রাণে,
যমের সাথে লড়াই করেন আসল ভগবানে!
লক্ষ কোটি ভক্তগণকে কাঁদিয়ে ই শেষে,
শাস্ত্রী মশায় চলে গেলেন না ফেরারই দেশে!
পরের ঘরের বাস্তুদোষটা সেরে দিতেন যিনি,
নিজ ঘরের বাস্তুদোষেই পুড়ে মরলেন তিনি!
প্রমাণ হতে বাকি আছে এই সমস্ত মিছে ?
তবু কেন ছুটছে মানুষ ভণ্ডগুলোর পিছে ?
অন্ধকারে ফেলছে গিলে দিবালোকে আলো,
মূর্খ জ্ঞানী সবাই কবে বুঝবে নিজের ভালো?

লেখকঃ কবি ও সাহিত্যিক, বর্ধমান, ভারত 

আরও পড়ুন