মন মসজিদের ইমাম

#Quarantine_Poem_1

হে আমার প্রেম মসজিদের ইমাম!
হে আমার হৃদয় রাজ্যের আমীর!
তুমি গোপনে আমার মনে ভালোবাসার আজান দিয়ে যাও।
ইকামাতের আগেই যেই না দৌড়ে মুক্তাদি হতে যাই
দেখি তারও আগে হাজারো প্রেয়সীর জামাত।

তোমার প্রেমে নামাজেও মন নেই আমার
মন তো উড়ে গেছে তোমার তিলাওয়াতের সুরে।
সালাম ফিরানো যেনো এক অবরুদ্ধ বেদনা
এখনই চলে যাবে তুমি ক্বিরাত শেষ করে।

আমি পাই না তোমার দেখা পরের ওয়াক্তের নামাজের আগে
আর তুমি দেখো না আমায় হাজারো প্রিয়ার ভিড়ে!

গোপনে তোমার দ্বারে পাঠালাম এক চিঠি রক্তে লিখে
বাইরে বড় বিদ্যুৎ চমক, আজ থাক ইমামতি করতে এসো না।
তোমার ক্বিরাত না শোনার যত বেদনাই হোক
তা একা একা বৃষ্টিতে ভিজে অশ্রু ঝরিয়ে দেবো।

শত ওয়াক্ত যাওয়ার পরও যখন তুমি এলে না
ব্যাথার নিকাব কায়ায় জড়িয়ে দুচোখ তোমায় খোঁজে।

দূর সাগরের কিনারায় যেই না তোমার তিলাওয়াত শুনলাম,
রুদ্ধশ্বাসে সে মসজিদের শেষ সিড়িতে পা রেখে দেখি
অন্য কারো মসজিদের ইমাম তুমি!

করে শেষ বৈঠক, হাত উঠালে তোমার প্রিয়ার সাথে,
‘হে খোদা! অনন্তকাল যেনো দুজনের প্রেম রঙে থাকি রঙিন!’
ভাঙা অন্তরে রক্তক্ষরণ নিয়ে আমিও দুআয় শরীক হলাম, ‘আমীন! আমীন!’

লেখক–তানহা, কবি ও সাহিত্যিক।

আরও পড়ুন