শিউলী মালা

 

এই তো সেদিন গোধুলী লগ্নে
পরিচয় হলো পাহাড়ের ভাঁজে।
গোলাপী ঠোঁটে একটু হাসি
তাকিয়ে ছিলে হালকা সাজে।
সবুজের মাঝে হারিয়ে ছিলাম তখনই
খোপায় ছিল শিউলী মালার তোড়া।
কথা হলো গড়িয়ে গড়িয়ে
দীঘল চাহনি ঠিক অাঁখিজোড়া।
দেখতে দেখতে সন্ধ্যা ঘনিয়ে এলো
লুকোচুরি খেলছে ইচ্ছেগুলো।
তখনও পাহাড়ের মতো স্থির
হালকা মেখেছে কল্পনার ধুলো।
নিরুপায় আমি !
মেঘের ডাক, নয়তো রবির প্রস্থানে
ফিরে এলাম আপন নীড়ে।
কেড়ে নিলে নিদ্রা, দিলে স্বপ্ন
ক্ষত-বিক্ষত করলে ভালোবাসার তীরে।
শিউলী মালার বাহারি রূপে আমি মুগ্ধ।
সত্যিই তুমি আপন গুণে স্নিগ্ধ।।

 

আব্দুল মতিন- কবি,সাহিত্যিকও সহ সম্পাদক মহীয়সী।

আরও পড়ুন