শেখ মুজিব

 

কবরের পাশে দাঁড়িয়ে
দেখুন,
একটি মানুষ দাঁড়িয়ে।
মৃত্যুকে করে ভ্রুকুটি,
সাত কোটি রক্ত শরীরে মেখে
দেখছে তোমার ত্রুটি।
পা দিয়ে দলে তোমার সব সমরাস্ত্র ;
দেখায় রক্ত চক্ষু
অঙ্গুলি ক্ষেপনাস্ত্র!
সিরাজের হাত ধরে এসে দাঁড়ায় মঞ্চে,
বীর সুভাষ, ক্ষুদিরাম,তিতুমীর আরো অনেকে সাথে তাঁর।
নজরুল বাঁশের বাঁশরী হাতে
রবী বাবু ও গানের পশরা পেতে,
বিশাল বপুর হক সাহেব
ভাসানী দরবেশ তাসবীহ জপে,
তাঁর বুকে নেই ডর
গাত্রে নেই জ্বর।
মিয়ানওয়ালী সাক্ষী থেকো
ঠিকানা তুমি মনে রেখো !
পদ্মা মেঘনা যমুনার স্রোতে
বহমান একটি নাম
এখানেই তাঁর ধাম।
একটি বিশাল বাঁশের মাথায়
সাত কোটি জবা রক্ত ঝরায়,
জয়নুল আর সুলতান আঁকে
আব্বাস আলীম চিত্রার বাঁকে।
খান জাহান বাঘের পিঠে
বায়েজীদ আর শাহজালাল
আরশের পা ধরে
মুক্ত কন্ঠে হুঙ্কার দেয়।
কবরের পাশে দাঁড়িয়ে ভ্রুকুটি
একজনই দেখাতে পারে।
ট্রিসিয়ার মতো দুঃসাহসী নাবিকদেরও ফুৎকারে
উড়িয়ে দিয়ে
বাঙলার আকাশে
একটি নাম
শেখ মুজিব
শেখ মুজিব ।

 

নূরে আলম মুক্তা- কবি,সাহিত্যিকও মডারেটর মহীয়সী।     

আরও পড়ুন