স্ব-মহীমায় তুমি

মঞ্জিলা শরীফঃ

প্রকৃতির শোভামন্ডিত সবুজে ঘেরা ধুলাউড়া আলোর শহরে
ঘোর বরষণে ছিপছিপ বৃষ্টি ভেজা প্রহরে মেঘের আড়ালে চাঁদ হেসেছিলো
তুমি জন্মেছিলে বলে সেদিন

এক টুকরো চাঁদের রোশনায় আলো  ছড়িয়ে দিল ধরণীতে,
নিজস্ব সতন্ত্র ঢং-এ কাব্যের সুষমামণ্ডিত
বর্নাঢ্য ভুবন নির্মাণ করেছো

সাহিত্যের উজ্জ্বল ভুবনে আজ
স্বমহিমায় দীপ্ত সমুজ্জল প্রতিভাময়
বৈচিত্র্যময় ভাবনায় বিষয়ী দর্পণে
যে ফিরে এসেছে ঘড়ির কাঁটার মত
স্বচ্ছ আয়না হয়ে,
দেখতে চেয়েছো সেখানে নিজের
সততার বিম্বিত  মুহুর্তমুকুর।

মায়ের দেহের মতো চিরচেনা শহরে
তৃষ্ণার ঋতুতে খুঁজেছো জলচ্ছত্র,
বৃষ্টির হাসিতে কাঁপানো প্রহরে
মেঘের মুর্তির পায়ে বেজে উঠা মলে
বাঁধতে চেয়েছো কাব্যপ্রেমী মনটা

হেলেদুলে চলা পাহাড়ি হরিণীর কোমড়ের ভাঁজে
বন্ধক রেখে প্রেমের ডায়েরি
সোনার দিনার ছাড়াই
দেনমোহর বিহীন লিখে দিলে সোনালী কাবিন

আজ তোমার জন্মদিনে আমার চাওয়া
আমাকে একটি রাত দাও
আলোবিহীন সেই আঁধার রাত,
তোমার হাতে হাত রেখে একসাথে আঁধারের গন্ধ নেব, মানুষের ঘুম আর আবেগের সমীকরণ বুঝতে চেষ্টা করব।

লেখকঃ কবি, সাহিত্যিক ও সহ-সম্পাদক, মহীয়সী।

আরও পড়ুন