প্রিয় লেখিকা

প্রিয় লেখিকা

প্রিয় লেখিকা আপনাকে বলছি,
আপনার কবিতা আমার ঘুমের
খোরাক যোগায়।
আমার লেখায় আপনার ঢং
চলে আসে অজান্তেই।
আপনাকে কতজন অপছন্দ করে!
আমি আপনাকে
ভালবাসি বলেই বলছি—
আপনি নিরাকার সৃষ্টিকর্তায় বিশ্বাস করেন না।
আজ যে বড় খালি চোখে
দেখতে না পাওয়া কোভিড আতংকে
সাবধানতা অবলম্বন করে আছেন!
আপনি নিষ্পেষিত, নিপীড়িত
নারীদের কথা প্রতিবাদী বাক্যে ঝড় তুলেছেন।
আমি মুগ্ধ হয়ে পড়ি।
কিন্তু অবাক হই কি জানেন?
যে পুরুষের জন্য আপনি
ঘৃণার ঢিবি তৈরি করেছেন,
সেই পুরুষের কাছেই তৃপ্তির
ঢেকুর তুলে স্বর্গ সুধা পান করলেন।
আপনি বললেন,প্রতিশোধ!
এ কেমন প্রতিশোধ?
আমার ক্ষুদ্র মস্তিষ্কে হয়ত বোঝার সক্ষমতা কম।
অবাক চিত্তে ভাবি, আপনি হিংস্রতার
থাবার ভেতরে কেন সমর্পিত হলেন?
আপনি সেচ্ছায় তাদের আড্ডার উপকরণ হয়ে গেলেন।
আপনি ভালবাসা ধারণ করে
ত্যাগী হতে পারলেননা!
আপনাকে আমার খুব বলতে ইচ্ছে করে
সমুদ্র পাড়ের শৈবালে চোখ রাখুন।
এখনো আছে, ডারউইনের
বিবর্তন সূত্র ধরে এখন কেন মানুষ হয়না?
আমি আপনার মত জ্ঞানী নই বটে!
কিন্তু আপনাকে ভালবাসি বলেই বলছি।
একটা কলামে পড়েছিলাম
একবার সেন্টমার্টিন দ্বীপ ট্রলারে পার হতেই
সমুদ্র ঝড় ওঠে। আপনি নিজের অজান্তেই
সৃষ্টিকর্তাকে ডেকে উঠেছিলেন।
আজও বিশ্বাস আনুন লেখিকা!
সৃষ্টিকর্তা নিরাকার না হলে
রাতের আকাশটা এত ঝলমলে হতনা।
এই যে এত সৃষ্টি! তার কারিগর
অবশ্যই আছে।
সময়ের কাছে ধরা দিন
আপনি সৃষ্টি কর্তায় বিশ্বাস আনুন।

লেখকঃ বিপাশা হাবিব আরজু, কবি ও সাহিত্যিক।

আরও পড়ুন