স্বাধীনতার ৫০ বছরে আমাদের প্রাপ্তি ও প্রত্যাশা

শাহানারা শারমিন

ভুমিকা: ১৯৭১ সালের ২৬শে মার্চ অনেক ত্যাগ ও রক্তের বিনিময়ে স্বাধীন হয়েছে আমাদের বাংলাদেশ।স্বাধীনতা অর্জন করা একদিকে যেমন ছিল কষ্টের তেমনিভাবে গৌরবেরও।স্বাধীনতার প্রকৃত প্রাপ্তি এনে দিয়েছে আমাদের নিদিষ্ট ভূখণ্ড ও নিজস্ব একটি পতাকা ও মাতৃভাষা।
পটভূমি :স্বাধীনতার পূর্বে বাংলাদেশ রাজনৈতিক, সানাজিক,অর্থনৈতিক, প্রশাসনিক, শিক্ষা-সংস্কৃতি প্রভৃতি ক্ষেত্রে ছিল পশ্চিম পাকিস্থানের বৈষম্যের স্বীকার।
পাকিস্থানের সীমাহীন অনিয়ম,শোষণ,নির্যাতনের বিরুদ্ধে বাঙালিরা ক্ষুদ্ধ হয়ে উঠে। ১৯৭০ সালের নির্বাচনে আওয়ামীলীগ জয়ী হলেও পাকিস্থানিরা ক্ষমতা হস্তান্তর না করে বিভিন্নভাবে টালবাহানা করতে থাকে।১৯৭১ সালে ২৫ মার্চ রাতে পাকিস্তানিরা গভীর রাতে নিরস্ত্র বাঙালীদের উপর বর্বর হামলা চালায়। ঐ রাতেই বঙ্গবন্ধু গ্রেপ্তার হয়। গ্রেপ্তারের আগেই তিনি স্বাধীনতার ঘোষনা দেন। ২৬শে মার্চ কালুরঘাট বেতার কেন্দ্রে বঙ্গবন্ধুর পক্ষ থেকে মেজর জিয়াউর রাহমান স্বাধীনতারর ঘোষনা দেন।
স্বাধীনতার প্রাপ্তি: স্বাধীনতার দীর্ঘ ৫০ বছরে বাংলাদেশের দিকে আমরা ফিরে তাকালে দেখতে পাই অর্থনৈতিক সামাজিক নানা দিকে বাংলাদের উন্নতির দিকে এগিয়ে রয়েছে।যেমন :খাদ্য বস্ত্র বাসস্থান,নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য মানুষের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যই আছে।
এছাড়া বিদ্যুতের ক্ষেত্রে উন্নতি, শিক্ষার হার বৃদ্ধি,তথ্যপ্রযুক্তির প্রসার,বনায়ন, রাস্তাঘাট নির্মান,ক্ষুদ্রঋণ প্রকল্প,কুটির শিল্প ইত্যাদি
উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করেছে।
অপ্রাপ্তি:স্বাধীনতার ৫০ বছরে আমাদের দেশে যা কিছু পেয়েছি তার জন্য আমরা গর্বিত হলেও আমাদের দেশে কিছুটা অপ্রাপ্তি আজও রয়েই গেছে। যেমন:যানজট, নিরাপদ খাবার পানির অভাব,মাদক নিয়ন্ত্রনে ব্যর্থতা, বাল্যবিবাহ, ধর্ষণ, ছিনতাই, দিন দিন বেড়েই যাচ্ছে।কিছু কিছু অসাধু ব্যবসায়ী অধিক মুল্য পাওয়ার আশায় বিভিন্ন দ্রব্য আটক করে জনগণকে হয়রানি করছে।শিক্ষা ও চিকিৎসালয়কে ব্যবসায় পরিণত করছে।
উপসংহার :প্রতিটা মানুষের স্বাধীনভাবে বাঁচার অধিকার রয়েছে। ২০২১ সালে স্বাধীনতার ৫০ বছর পুর্তিতে বাংলাদেশের যেসব সমস্যা ও অপ্রাপ্তি আছে সেগুলো সার্বিকভাবে উন্নয়ন হবে এমনটায় আমাদের প্রত্যাশা।

লেখকঃ কবি ও সাহিত্যিক।

আরও পড়ুন