কীভাবে ভালোবাসবেন?

তারিক হক

কীভাবে ভালোবাসবেন ?

পড়েই আপনার ভ্রুরু কপালে উঠেছে তাই না ! মনে মনে বলছেন :

আপনি  বুড়ো বয়সে আমাদের বিদেশ থেকে শেখাতে চাইছেন  কীভাবে  ভালোবাসতে হয় !

আমরা বাঙালিরা আর যা পারি না পারি এটা খুব ভালোভাবে পারি I  জানেন লেখক,  আমরা প্রেমিক বা প্রেমিকাকে দেখলেই বলি “আমার হিয়ার মাঝে লুকিয়ে  ছিলে  দেখতে আমি পাইনি তোমায় দেখতে আমি পাইনি “।

আমি সেটা জানি I কিন্তু আমি তো হাজার বছর ধরে চলিতেছি পৃথিবীর পথে সেই জন্যে আপনাদের সহিত  কয়েকটি  বিষয় শেয়ার করিতে   চাহিতেছি ।

১ . বন্ধু বা বান্ধবীকে প্রশংসা  করবেন ।  প্রশংসা মানে চাটুকারিতা নয় ।  সত্যি প্রশংসা করুন ।

“সুন্দর বটে তবে অঙ্গদ খানি  তারায়  তারায় খচিত ” না বলে বলুন “জানো  তোমার এই গুণটি  আমার এতো ভালো লাগে ” ।দেখবেন সে খুশি হয়ে গেছে  ।

ইন্টারনেটে পড়েছিলাম এক ভদ্রলোক ১২০ বার বিয়ে করেছিলেন। সাংবাদিক যখন তাকে জিজ্ঞেস করলো “কীভাবে আপনি ১২০ জন ভদ্রমহিলাকে প্রভাবিত করেছিলেন ?”

উত্তর : আমি শুধু তাদের প্রশংসা করতাম।

আমি আপনাকে ১২০ বার বিয়ে করতে বলবোনা, তবে প্রশংসা করলে ক্ষতি কি ?

২ . সঙ্গীকে গুরুত্ব দেবেন

কখনো বলবেন না “তোমার মাথায় কিছু নেই ” । মনে রাখবেন পৃথিবীতে প্রতিটি লোকই নিজেকে বুদ্ধিমান মনে করে I সেটা দরিদ্র রিক্সাওয়ালা থেকে শুরু করে প্রাইম মিনিস্টার পর্যন্ত ।

৩ . সঙ্গী যেন প্রতিটি মুহূর্তে বুঝতে পারে তার আপদে বিপদে দুঃখ শোকে আপনি আছেন ।

. “বিপদে মোরে রক্ষা করো এ নহে মোর প্রার্থনা ”   না গেয়ে সঙ্গী যেন সবচেয়ে আগে আপনাকে ফোন করে  ।

৪ . সুন্দর পোশাক পরবেন । শোভনীয় ।   তার মানে এই নয় যে চুলে কলপ লাগিয়ে সানগ্লাস পরে মোটর সাইকেল নিয়ে গার্লস কলেজ এর পাশে দাঁড়িয়ে থাকবেন ।  এটা  অসভ্যতা ।  EVE TEASING .

৫ .সঙ্গী বা সঙ্গিনীর কাছে অকপট হোন। আপনি কি চান তাকে বলুন।   এতে লজ্জার কিছু নেই।

প্রিয় লেখক হুমায়ুন আহমেদ তার “বৃষ্টি বিলাস” উপন্যাসে লিখেছেন, “ছেলেদের চেহারা সমগ্রজীবনে খুব একটি পাল্টায় না, কিন্তু মেয়েদের চেহারা পাল্টাতে থাকে । কুমারী অবস্থায় থাকে একরকম চেহারা, বিয়ের কথাবার্তা ঠিক হবার সময় হয় অন্য একরকম চেহারা, বিয়ের পর আরেক রকম চেহারা। মা হবার পর চেহারা আবার পাল্টায়। যখন শাশুড়ি হয় তখন আরেকদফা চেহারা বদল।”

তার পরের লাইনটি আরও মজার।

তিনি লিখেছেন- “স্বামী তেল আর স্ত্রী জল। ঝাঁকাঝাঁকি করলে মিশে আর ঝাঁকাঝাঁকি বন্ধ করলেই তেল জল আলাদা হয়ে যায়।

তাই পাঠক-পাঠিকা, সম্পর্ক বজায় রাখতে হলে অহং ভুলে গিয়ে ঝাঁকাঝাঁকি করুন। দেখবেন দু’জনে একসাথে মিশে যাবেন।

তারিক হক মোটিভেশনাল স্পীকার ও জার্মান প্রবাসী। 

আরও পড়ুন