ক্ষমা করতেই প্রশান্তিঃ

ক্ষমা করাতেই প্রশান্তিঃ
……………………………

মানুষের সমাজে আমাদের নিবাস।
মানুষের সাথেই মানুষের গড়ে উঠে নানা ধরণের সম্পর্ক।
মানুষকে মিশতে হয় মানুষের সাথে।
বিনিময় হয় ভালবাসা, মায়া,আবেগ,সম্মান,বন্ধুত্ব।
যেকোন সম্পর্কের ভিত্তি দাঁড়িয়ে থাকে বিশ্বাস ও পারস্পরিক বোঝাপড়ার উপর।

মাঝে মাঝে সেই সম্পর্ক গুলোর উপর ঝড় আসে।
মানুষ হয়ে আমরা চিনতে ভুল করি মানুষরুপি অমানুষ ও অকৃতজ্ঞ প্রাণীটা কে।
আমরা প্রতারিত হই।
আমরা ঠকি।

জীবনের বিভিন্ন ক্ষেত্রে আমরা মানুষরা নানাভাবে বিভিন্ন মানুষ ও সম্পর্ক জড়িয়ে প্রতারিত হই।
আমাদের বিশ্বাস নিয়ে খেলে যায় একদল।

আমাদের ভেতরটা ভেঙেচুরে খান খান হয়।
আমরা দগ্ধ হই বিষাদের অনলে।
আমাদের ভেতর জেগে উঠে প্রতিশোধ নেবার অদম্য নেশা।

কিন্ত আপনাকে এখানেই মানবিক ভাবে আচরণ করতে হবে।
ভাবতে হবে গভীর কিছু বোধ নিয়ে।
ভাবতে হবে আপনার জন্যই।

শক্তিশালী মানুষরা ক্ষমা করতে জানে।
দূর্বল চিত্তের মানুষরা ক্ষমা করতে জানেনা।

আপনি কাউকে ক্ষমা করার অর্থ এটা নয় যে সেই মানুষটা ক্ষমা পাবার যোগ্য কিন্ত আপনি তো শান্তি Deserve করেন।
তাই আপনার শান্তির জন্যই ক্ষমা করতে হবে।

যখন আমাদের মাঝে কোন গভীর ক্ষত তৈরি হয় কারো দ্বারা,তখন সেই অমানুষটা কে ক্ষমা না করা অব্দি আপনার এই ক্ষতটা শুকাবে না।

অনেক সময় কাউকে ক্ষমা করা তার দ্বারা পাওয়া আঘাতের চেয়েও বেশি কষ্টকর তা আমরা জানি।
কিন্ত আপনি শান্তিপ্রিয় মানুষ, শান্তির জন্যই ক্ষমা করে দিতে জানবেন।

কাউকে আপনি ক্ষমা করে দিলেই অতীতটা মুছে যাবে না কিন্ত আপনার ভবিষ্যৎ যে আলোকিত হবে তাতে সন্দেহ নেই।

তাই কেউ আপনার সাথে অন্যায় করলে তাকে ক্ষমা করলেও তাদের নাম গুলো মনে রেখে দিবেন।

অনেক সময় কিছু মানুষ দেখবেন আপনার সাথে তারা অন্যায় আচরণ করেও অনুতপ্ত হবেনা।
তারা কিছুই পাত্তা দিবেন না।
তো আপনি কি করবেন?
আপনি তাকে বলবেন, তোমাকে ক্ষমা করাটা আমার উপহার তোমার জন্য।
তোমাকে পিছনে ফেলে সামনে এগিয়ে যাওয়াটা আমাকে দেওয়া আমার নিজের উপহার।

আপনার সাথে অন্যায় করা ব্যক্তিকে ক্ষমা করে দিয়ে আপনি নিজেকে নতুন একটা ভোর উপহার দিলেন।

কাউকে ক্ষমা করে দেওয়া মানে এই নয় যে তাদের আচরণ ও অন্যায় কে মেনে নেওয়া বরং আপনি নিজেকে রক্ষা করলেন তাদের ক্ষতিকর ও কুৎসিত মন থেকে।

ভুল মানুষ করে।
আমরা মানুষ।
তাই আপনি যতদ্রুত সৃষ্টিকর্তার কাছে ক্ষমা প্রত্যাশা করেন,তত দ্রুতই আপনার সাথে অন্যায্য আচরণ করা মানুষের কায়াটা কে ক্ষমা করে দিতে শিখুন।

সব হিসেব নিজে চুকানো ঠিক না।
আল্লাহ কেও সব বলার দরকার নাই।
কারণ তিনি সব দেখেন ও জানেন।

আপনি কারো জন্য কি আচরণ কোন নিয়তে করছেন, তা উনি জানেন।
উনার বিচার নিরপেক্ষ ও সূক্ষ্ম।

আপনি এটা ভাবার কারণ নেই কাউকে ক্ষমা করে দিয়ে আপনি হেরে গেলেন।
বরং আপনি জিতে গেলেন ক্ষমা করে।

মানুষের প্রতি ভালবাসার শুদ্ধতম ও উচ্চতর রুপ হলো ক্ষমা করতে পারা।
আর এই ক্ষমা করেই আপনি পাবেন অপরিসীম মানসিক প্রশান্তি ও আনন্দ।।

সবচেয়ে কঠিন প্রতিশোধ হলো কোন প্রতিশোধ না নেওয়া।।

আসুন ক্ষমা করতে শিখি।
ক্ষমা করা সৃষ্টিকর্তার একটা গুণ।
সেই গুণে নিজেকে গুণান্বিত করা উচিত মানুষদের।

ক্ষমাই সুন্দর।
ক্ষমা করাতেই প্রশান্তি।

তবে হ্যাঁ আপনার সাথে হওয়া অন্যায়, অন্যায্য, অমানবিক আচরণ এর জন্য আপনি ক্ষমা করলেও প্রকৃতি সবাইকে তার পাওয়া মিটিয়ে দেয় যথাযথ ভাবেই।।
……………………………….

ডাঃ জোবায়ের আহমেদ।।

লেখক–ডাঃ জোবায়ের আহমে,  প্রাবন্ধি, কবি ও সাহিত্যিক।

আরও পড়ুন