আরজি

নাসরিন সাথীঃ

অন্যায় আর অবিচার দিয়ে ভরেছি জীবনখাতা,
পাপ পঙ্কিল কর্মের গানে সয়লাব সব পাতা;
ওগো দয়াময় হয়ে গেছি শেষ হাহাকারে বুক ভারি,
শুনছো কি তুমি দিকভ্রান্তের অন্তিম আহাজারি?
দিশ নেই আর হারিয়েছি কূল,
পরতে পরতে শত শত ভুল,
ঘেন্নার জামা পড়েছি এ গায় মুখ ফিরিয়েছে সবে;
খুড়িয়ে চলছি পথে প্রান্তরে আশ্রয় কোথা হবে?

মুখ ফিরিয়েছে নিজ পরিবার পাড়া-প্রতিবেশি যারা,
ভুলেরভালের মাশুল গুনছি হয়ে সম্মানহারা;
কুকুরের মত দুরদুর করে তাড়ানি খেয়েছি কত!
বুকের ভেতরে ঢের বেশি ক্ষত বাহিরে গেঁথেছে যত।
ছিন্নভিন্ন হৃদয়কুটির,
আবেদন তাই দুঃখ-ছুটির,
ক্লান্ত শরীর শ্রান্ত হৃদয় বর্জন করে হায়া
শান্তির কোলে ঘুমাবার আশে মাঙছে তোমার ছায়া।

ওগো রহমান, রাহীম আমার, মালিক, খালিক প্রভু,
নাদান জীবনে এই দরবারে তুলিনি দুহাত কভু,
চকিতে চাইনি শাহী দরবারে খানিক ভুলের ছলে,
বুঝিনি কখনো কত ভালোবাসো নিশ্চুপ তলেতলে,
কেন যেন আজ হারিয়েছি লাজ,
ক্ষমা পাবো আশা করছে বিরাজ,
তাই ছুটে আসা অনুনাদী স্বর চোখ যায় জলে ভেসে,
একী প্রশান্তি! ভরেছে হৃদয় তোমার দুয়ারে এসে।

ঘরহীন পাপী করি আহাজারি শূন্য দুহাত তুলে,
ছায়া দাও প্রভু ক্ষমা ভালোবাসা শত পাপাচার ভুলে।
মহিমান্বিত ত্রাণের কর্তা দাও উদারতা ঢেলে,
মহীয়ান প্রভু শেষ আশ্রয় দাও হিতকর মেলে,
বাসিত ক্ববিদ গফফার জামি
মাজিদ আখির ক্বহহার সামি
গ্রীষ্মহৃদয়ে খরতাপ তেজ বৃষ্টির ফোঁটা ঢালো,
আঁধারের নদে হাবুডুবু প্রাণ মাগছি ছটাক আলো!

 

লেখিকঃ কবি ও সাহিত্যিক।

আরও পড়ুন
1 টি মন্তব্য
  1. JAMILA বলেছেন

    Nice poem

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.