কবিতায় প্রতিবাদ

ফাহমিদা রহমান

আমি পারদর্শী দেশ দেখতে চাই
স্বাধীনতা রক্ষায় পারদর্শী।
সত্য বলার স্বাধীনতা রক্ষায় পারদর্শী দেশের
স্বপ্ন আমার এ দুচোখে!
যে দেশে সত্য প্রকাশে রুদ্ধশ্বাস!
ছি! ধিক্কার, শত ধিক্কার!
যে দেশে মত প্রকাশই নিষ্পাপ ছাত্রের লাশ!
তিরষ্কারের সমার্জনা আমার তাদের প্রতি।
যেখানে শিক্ষিত কুলাঙ্গারের আচড়ে
ফাহাদের ফুসফুস আজ ক্ষত বিক্ষত।
তাকে কি করে স্বাধীন বলতে পারি?
যে দেশের রাস্তায় মৃত্যুর মিছিল!
আমি পারদর্শী দেশ দেখতে চাই।
নারীর সম্মান রক্ষায় পারদর্শী দেশ
অধিকারের নামে বর্বরতাকে আমি ঘৃনা করি।
তীব্র ঘৃনা আমার চোখে।
আমি পারদর্শী দেশ দেখতে চাই
স্বাধীনতা অর্জনের পরে,
স্বাধীনতা রক্ষায় পারদর্শী দেশ।
যে স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু।
অধিকারের স্বপ্ন!
বাক স্বাধীনতার স্বপ্ন!
মত প্রকাশের স্বপ্ন!
সত্যিকারের গনতন্ত্রের স্বপ্ন!
বঙ্গবন্ধুর দেখানো স্বপ্ন পূরনে পারদর্শী
সে দেশের মুখ দেখার স্বপ্ন আমার এ চোখে।
নজরুলের মত”নিজের কর্ণাধার নিজেই”
এমন মানসিকতার স্বপ্ন।
পরালম্বনে নিষ্ক্রিয় হওয়া দেশ আমি চাই না।
সত্য পথের বিরোধী বিপথ আমি চাইনা।
চাইনা কেবল স্বাধীনতা রক্ষার স্বীকারোক্তি।
চাই স্বীকারোক্তি কে সত্য করার তাগিত দিতে পারদর্শী।
এমন তাগিদে পারদর্শী দেশের স্বপ্নই আমি দেখি।
তবে আজ,এখনই বলা যায়
আমার কবিতাই তবে বলুক
সত্যিকারের অধিকারের কথা।
সাধারণ মত প্রকাশে নিষ্পাপ ছাত্রের রুদ্ধশ্বাস
রোধের কথা বলুক তবে আমার পদ্য।
যে কথা বলেছিলেন বঙ্গবন্ধু।
তাঁর প্রতি হাজারো শ্রদ্ধা নিবেদন করুক
আমার এ কবিতা।
তাঁর স্বপ্নের সত্যিকারের বাস্তবতার রূপ
তুলে ধরুক আমার কবিতা।
আমার পদ্য তবে সত্যিকারের
গনতন্ত্রের প্রতিচ্ছবি তুলে ধরুক।
সত্যিকারের গনতন্ত্রের প্রতিচ্ছবিকে বাস্তবে
রুপান্তরিত করতে পারদর্শী দেশের স্বপ্নই
তবে থাকুক সব হৃদয়ের মাঝে।

আরও পড়ুন
1 টি মন্তব্য
  1. Ahnafer Ma বলেছেন

    Oshadharon

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.