চীনের উইঘুর মুসলিম কবি মুহেমেত আব্দুশুকুরের কবিতা: রাত

অনুবাদঃ জুম্মি নাহদিয়া

চেয়েছিলাম সেই রাতটা আমার চুলের মত স্বল্পদীর্ঘ হোক,
আর আমার হৃদয়ের মতই দীপ্তি ছড়াক খুব চেয়েছিলাম,
আরও চেয়েছিলাম এই জীবনের সঙ্গে তোমার আমার দূরত্বকে একদম বেঁধে ফেলতে।
সমস্ত অশ্রুজল নিছক আমার চোখের জল হয়েই থাকুক চেয়েছিলাম,
অথচ সে জলে ক্রমাগত বাড়ে মরিচার ক্ষয়, জং ধরে ত্বকে।

এখনো সে রাত আমার অন্তহীন ভাবনাগুলোর মত দীর্ঘ থেকে যায়,
আর চমকে ওঠা অগণন স্বপ্নের মত আতঙ্কে ডোবায়,
দূরত্বও এখন আমার আকাঙ্ক্ষার মতন সীমাহীন।

সূর্যটা কেমন মোদো মাতাল,
লম্বা গিরিপথটার যে প্রান্ত থেকে আমি এসেছিলাম একদিন,
সেখানেও অনর্গল রাত্রির আলিঙ্গন।

আমার চুলগুলো একে একে ধূসর হয়ে পড়ে,
অথচ সে রাত অন্ধকারেই ঢেকে থাকে,
মাথা ভরা চুলের অর্ধেকটা ঝরে পড়ে আমার,
অথচ সে রাত আগের মতই ঘন থেকে যায়।

 

(বিঃ দ্রঃ  কোনা শেহেরের কবি মুহেমেত আব্দুশুকুর। ২০০৪ সাল থেকে সুইডেনে বসবাসকারী একজন উইঘুর। তার ছোট ভাই সহ নিকটজনদের অনেকেই জিনজিয়াং রিএডুকেশন ইন্টার্নমেন্ট ক্যাম্পে বন্দী আছেন। আর দশজন নির্বাসিত উইঘুর, কাযাখ কিংবা নর্থওয়েস্ট চায়নার কবিদের মতন মুহেমেতও কবিতা লিখে দুঃখ ভোলার অবিরাম চেষ্টা করে যাচ্ছেন।

মুহেমেত আব্দুশুকুরের ক্লান্ত অপেক্ষা একটি চমৎকার ভোরের জন্য। ঝাঁকড়া চুলের তারুণ্যে যে অদেখা ভোরের জন্য তৃষ্ণা জমেছিল বুকের ভেতর, এই পড়ন্ত বেলাতে পৌঁছে দেখেন রাতের অন্ধকার এতটুকুও ম্লান হল না। )

অনুবাদকঃ সাহিত্যিক ও  জার্মানি প্রবাসী 

আরও পড়ুন