বুনি কথার মালা

আব্দুস শাকুর তুহিন
~~~~~~~~~~~~

আচ্ছা ভাবো- মনের ভাষা
প্রকাশ করার জন্য,
কথা ছাড়া উপায় কি আর
আছে কোথাও অন্য?

ভালোবাসা ভালো লাগা
কিংবা ধরো দুঃখ,
কথা ছাড়া কেমন করে
হতো প্রকাশ সূক্ষ!

জীবন পালের সূতোয় সূতোয়
কত্তো কথার তুলো!
কত্তো কথার মালা বুনা
কত্তো কথার ফুলও।

কেমন করে বুনবে কথার মালা !
কোন কথাতে প্রাণ জুড়াবে !
কিংবা ফুলের ঘ্রাণ কুড়াবে!
কোন কথাতে ঘুঁচবে দুঃখের জ্বালা!

আর দেরি নয় প্রশ্ন করি চলো,
“কেমন করে বলবো কথা
কুরআন তুমিই বলো।”

বললো কুরআন হেসে,
“কথার আগে সালাম দেবে”
একটু ভালোবেসে।

খুব প্রয়োজন কথা বলা
সতর্কতার সাথে
কারণ “প্রতি কথার ধ্বনি
রক্ষিত খাতাতে।”

কথা হবে “খুব সুন্দর”
এবং খুবই “উত্তম”,
“অনর্থক আর বাজে কথা”
না-ই বলো! খুব কম।

“কণ্ঠ-ধ্বনি নিচু করে
কথা বলো” তুমি,
“কথার মাঝে বুদ্ধি খাটাও”
“সঠিক বলো” ভুলটা কাটাও-
কথার মাঝেই যাক খুলে যাক
“পাপ মোচনের” ভূমি।

“কর্কশে আর বিকট স্বরে”
কথা বলায় বাধা,
কথায় যেন না হয় মনে
কণ্ঠ এ কি ! গাধা!

মন দিয়ে নাও শুনে,
“ভালো কথায় শত্রুও যায়
কাছের সাদিক বুনে।”

সাবধানে কও কথা,
“বিশ্বাসীদের কথায় কাজে
মিল থাকা চায়” সকাল সাঁঝে,
সুপথ ডাকো ভালো কথায়
কথাই ভালো প্রথা।

এড়িয়ে চলো তাদের-
মূর্খ এবং অজ্ঞ যারা
কথায় কথায় তর্ক দ্বারা
কষ্ট দেয়া স্বভাবটা হায় যাদের।

শোনো মেয়ে শোনো-
“নয় কথা নয় কোন
ইনিয়ে
বিনিয়ে,
পর পুরুষের সাথে” কথা
কি নিয়ে!
বলতেই যদি হয়-
এমন ভাবে বলো যাতে
মন্ত্রণা না রয়।

“সব মানুষের সাথে
খুব সুন্দর কথা বলো”
দিনে-রাতে প্রাতে।

হাজার কথার মালা বুনি
চলো এমন ভাবেই,
চাইলে তিনি এই মালা ঠিক
আরশ ছুঁয়ে যাবেই~

৯:৫১
০৫’০৯’২০১৮

আব্দুস শাকুর তুহিন কবি ও গীতিকার। 
সুর, ওমান। 

আরও পড়ুন