এখন মানুষগুলো অন্যরকম

এমদাদুল হক হীমু

এখন মানুষগুলো অন্যরকম
পকেট ভর্তি অনেক মুখোশ,
কাজে কর্মে ভীষণ চৌকস!
জানা আছে চাতুরী সবরকম।

সকালে শিউলি তলায় ভোর বেলায়
ঘাস ফড়িং, কে জানে অন্যায় কারে কয়।

দুপুরে ভীষণ তপ্ত, টেন্ডার বাজি কি আর ভেজা বেড়ালে হয়!

বিকেলে পুরোপুরি হিসেবি! কে বলবে দুপুরে প্রচন্ড তাপে টগবগিয়ে খুন ছোটে এ হৃদয়।

সন্ধ্যায় দেওয়ানা মজনু ফুল হাতে অপেক্ষায়, ভুলে গিয়ে মজে ছিল গোধুলিতে পরকীয়ায়।

সন্ধ্যার ভালোবাসার মুখোশটা পাল্টাতে হয়।
দেশ ভাবনায় রাজনৈতিক কর্মীদের অফিস ঘরটায়, একটু আধটু নেশাটেশা বরাবরই হয়; কোটি কোটি মানুষের ভাবনা অল্প কটা মাথায়! একটু চাঙা হতেই হয়।

ক্ষমতায় বসার চেয়ে ক্ষমতা ধরে রাখার চেষ্টায় মুখোশ পাল্টাতেই হয়।
একই ফুল ফুলদানিতে কতদিন সতেজ রয়। তাই দৃষ্টি নন্দনতত্ত্ব জানতেই হয়,
আর চাহিদার অনুকূলে মুখটাকে সাজাতেই হয়।

রাত গভীর হয়, ধীরে ধীরে মুখোশটা ঘরমুখো হয়;
হাতে প্রসাধনী, অন্তর্বাস দামী, বেলীফুলের মালাটা ও বাদ দেয়া নয়।

ঘুমিয়ে পড়া চাঁদের পরশ গায়ে মেখে বিছানায় গভীর ঘুমে অচেতন স্বপ্নহীন হৃদয়।
অতৃপ্ত তপ্ত বুকে বেনামী সঙ্গী আসন পেতে বয়, মুখোশটা পাল্টাতেই হয়।

আরও পড়ুন