বেগম পাড়াটা যেন কোথায়!

জসিম মল্লিক

বরিশালে আমাদের বাড়ির কাছেই সিএন্ডবি রোডের উপর অনেকগুলো পাঁচতলা বিল্ডিং আছে। যখন স্কুলে পড়ি বিকেল হলেই সেখানে ঘুরতে যেতাম। আমার কয়েকজন ক্লাসের বন্ধু ছিল সেখানে। ওদের সাথে খেলতে যেতাম। খেলা ছাড়াও সুন্দর সুন্দর মেয়ে দেখতে যেতাম। বয়সটাই এমন! যারা সরকারি চাকরি করে তাদের পরিবার পরিজন এখানে থাকে। তারা কেউই স্থনীয় ছিল না। ওটাকে বলা হয় সিএন্ডবি কলোনী। কেউ অন্য জায়গা থেকে বসবাসের জন্য আসলে সেই জায়গাটা কলোনী কেনো হবে তা আমার বোধগম্য নয়! এমনকি রিফিউজি শব্দটিও আমার পছন্দ না। এক দেশ থেকে আর দেশে বসবাসের জন্য আশ্রয় প্রাৰ্থনা করলেই তাকে রিফিউজি বলতে হবে কেনো! সিএন্ডবি কলোনী ছাড়াও আরো অনেক কলোনী দেখেছি বড় হয়ে ঢাকা এসে। টিএন্ডটি কলোনী, মতিঝিল কলোনী, আদমজী কলোনী..।


এই যেমন “বেগম পাড়া” নিয়ে কিছু লোক খুউব উচ্ছসিত। কথায় কথায় শব্দটি উচ্চারণ কৱেন। বাংলাদেশের মন্ত্রী, এমপি, সাংবাদিক,লেখক সবাই বেগম পাড়া নামটি শুনেছেন। রেফেরেন্স দেন। এখানকার অনেকেও বেগম পাড়া নিয়ে উচ্চকিত। বেগম পাড়া মানে হচ্ছে শুধু বেগমরা থাকেন। সাহেবরা থাকেন না। বেগম পাড়া বলতে অনেকে একধরণের বিকৃত আনন্দও পায়। কেনো পায় কে জানে! অনেকে আবাৱ টাকা পয়সা তছৱুপ বা দূৰ্নীতিৱ গন্ধ পান। আমি এতোদিন শুধু চিনতাম পুরান ঢাকার বেগম বাজার, নোয়াখালীর বেগম গঞ্জ বা ৱাজশাহীৱ ৱানী বাজাৱ। এছাড়া কলকাতায় বউ বাজারেৱ নাম শুনেছি। সাহেব বাজারও আছে কোথাও কোথাও। কিন্তু এতোবছর টরন্টো থাকলাম কখনো বেগম পাড়া জায়গাটা কোথায় চিনতে পারলাম না।

আচ্ছা বেগম পাড়ার অস্তিত্ব কি শুধু টরন্টোতেই! নাকি অন্য দেশেও বেগম পাড়া আছে! থাকারতো কথা! বেগমরা শুধু টরন্টোতেই থাকবে তাত নয় অন্য দেশেও থাকবে নিশ্চয়ই। তাহলে শুধু টরন্টোকে কেনো বিশেষভাবে বোঝানো হয়! আমি টোকিওতে কখনো বেগম পাড়ার কথা শুনিনি, নিউইয়ৰ্কে শুনিনি, লসএঞ্জেলেসে শুনিনি, সিডনিতে শুনিনি, লন্ডনে শুনিনি, রোমে শুনিনি, প্যারিসে শুননি, দুবাইতে শুনিনি, ব্যাংকক বা কুয়ালালামপুরে শুনিনি। আচ্ছা কেউ কি জানেন নিৰ্দিষ্টভাবে টরন্টোর কোন এলাকাটা বেগম পড়া! টরন্টোর নেইবারহুড যেভাবে গড়ে উঠেছে তাতে ’পাড়া’র কোনো কনসেপ্ট আছে বলে আমার জানা নেই ।


গ্রেটার টরন্টো বিশাল এক শহর। দানবীয় শহর। সেই শহরে সৰ্বত্ৰ্য ছাড়িয়ে ছিটিয়ে আছে মানুষ। হ্যাঁ এটা ঠিক বাংলাদেশের কিছু খুচড়া ধনী দেশের টাকা পাচার করে টরন্টোতে মিলিয়ন ডলারের বাড়ি কিনেছে ঠিকই কিন্তু সেগুলো বিচ্ছিন্নভাবে। কোনো বিশেষ ’পাড়া’য় নয়। সারা পৃথিবীর ধনাঢ্য মানুষরা টরন্টোতে থাকেন। বিশ, পঁচিশ, পঞ্চাশ, একশ মিলিয়ন ডলারের বাড়ি কিনেও থাকেন। তারা কেউ বাঙ্গালি না। অন্য দেশের মানুষের মুখে কখনো ’বেগম পাড়া’ শব্দটি শুনিনি। আমার যারা বিদেশী বন্ধু আছে তারাও শোনেনি। তাহলে কি বেগম পাড়া শুধুই একটি কল্পিত আৱ কথিত শব্দ! আমি আদার ব্যাপারী জাহাজের খবর নাও জানতে পারি। যারা জানেন তাদের কাছে শোনার অপেক্ষায়। বেগম পাড়া নিয়ে গল্প, উপন্যাস লেখা হচ্ছে। নাটক, সিনেমাও হবে ভবিষ্যতে। এতো হৈচৈ হচ্ছে যে পাড়া নিয়ে সেই পাড়ার বেগমরা কেমন খুউব জানতে ইচ্ছে করে!

লেখকঃ সাহিত্যিক ও প্রবাসী বাংলাদেশী, টরন্টো, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

আরও পড়ুন

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.