অবৈধ অভিবাসন ঠেকাতে তিউনিসিয়ার রাষ্ট্র প্রধানের সাথে ইতালীর পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠক

মাঈনুল ইসলাম নাসিম, ইতালি থেকে

সাগরপথে অবৈধ অভিবাসন ঠেকাতে তিউনিসিয়ার রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানের সাথে ১৭ আগস্ট সোমবার আনুষ্ঠানিক বৈঠক করেন ইতালীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী লুইজি দি মাইও এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী লুশানা লামোরজেসে। একই উদ্দেশ্যে অতি সম্প্রতি লিবিয়াও সফর করেন ইতালীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

অবৈধ অভিবাসীদের যার যার দেশে ফেরত পাঠাবার সরকারি সিদ্ধান্ত পুনরায় জানান দিয়েছেন ইতালীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী লুইজি দি মাইও। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী লুশানা লামোরজেসেকে সাথে নিয়ে উত্তর আফ্রিকার দেশ তিউনিসিয়া সফরকালে ১৭ আগস্ট সোমবার বিষয়টি নিশ্চিত করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী দি মাইও। ফলে ৮ মার্চের পরে যারা স্থল কিংবা সমুদ্রপথে ইতালিতে অনুপ্রবেশ করেছে তাদের বৈধতার আপাতত কোন সুযোগ রইলো না ইতালিতে।

ইতালিতে ৮ মার্চের আগে থেকে অবস্থান করা অবৈধ অভিবাসীদের সুনির্দিষ্ট কয়েকটি সেক্টরে কাজের নিমিত্তে বৈধ করে নিতে ১ জুন থেকে ১৫ আগস্ট পর্যন্ত চলা বৈধ অভিবাসন কর্মসূচীর আওতায় মোট ২ লাখ ৭ হাজার ৫৪২টি আবেদন জমা পড়ে। কৃষিকাজ, মৎস ও পশুপালন, বাসাবাড়িতে গৃহকর্মী এবং বৃদ্ধাশ্রমে বয়স্কদের সেবাযত্ন শুধুমাত্র এই সেক্টর সমূহেই কাগজপত্র জমা নেয়া হয় অনলাইনে, যা এখন ব্যাপক যাচাই-বাছাইয়ের অপেক্ষায়।

নির্ধারিত সময়ে যারা কাগজপত্র জমা দিতে পারেনি তাদের ব্যাপারে সরাসরি কোন সিদ্ধান্ত না থাকলেও সহসাই ভালো কিছু আশা করার সম্ভাবনা নেই। তবে ৮ মার্চের পরে ইতালিতে অবৈধ অনুপ্রবেশ যারা করেছে তাদের পরিণতি জানালেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। অবৈধ অভিবাসন ঠেকাতে তিউনিসিয়ার রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানের সাথে আনুষ্ঠানিক বৈঠক করেন তাঁরা। অতি সম্প্রতি একই উদ্দেশ্যে লিবিয়াও সফর করেন ইতালীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

মাঈনুল ইসলাম নাসিমঃ সাংবাদিক ও সোশ্যাল একটিভিস্ট

 

আরও পড়ুন