নারী পরিচালিত দি পাথফাইন্ডার পাবলিকেশন্সের শীত বস্ত্র বিতরণ

বগুড়া প্রতিনিধি

“পাথফাইন্ডার”  অসাধারণ একটা নাম যার অর্থ পথিকৃৎ বা প্রবর্তক । একজন নারী হচ্ছেন দি পাথফাইন্ডার  পাবলিকেশন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক । তার নাম সুলতানা আখতার । তিনি তার পাবলিকেশন্সের প্রথম বই বের করার জন্য যখন “ISBN” নিতে যান তখন তাকে বেশ তাচ্ছিল্যেরে সাথে বলা হয়েছিল আপনি মেয়ে মানুষ বই প্রকাশের এই কঠিন পেশায় কেন?  আপনি নাম্বার নিয়ে কি করবেন? বই  বের করতে পারবেন? তিনি তাদের প্রশ্নে দমে যাননি বরং দৃপ্ত কণ্ঠের উত্তর ছিল  ” নারীরা এই জায়গায় কাজ করে না  বলেই আমি এসেছি ।”

তিনি ব্যবসায়িক উদ্দেশ্যে বই বের করেন না । প্রায়ই বিনা মূল্যে বই বিতরণ করেন । মানুষের জ্ঞান অর্জনের দ্বার উন্মুক্ত করার জন্য । কোন ক্রেতা  যদি বই কিনতে চায় আর সেই মুহূর্তে বইয়ের দাম পরিশোধের সামর্থ্য না থাকলে বাকিতেও কিনতে পারেন । কিস্তিতে দাম পরিশোধ করতে পারেন ।  কি অসাধারণ প্রচেষ্টা মানুষকে বইমুখী করার !

সমাজের মানুষকে জ্ঞান অর্জনের জন্য তিনি শুধু বই বের করেই ক্ষান্ত হননি । নানা ধরণের সেবা মূলক কাজ করে যাচ্ছেন । অসহায় মহিলাদের আশ্রমসহ অসংখ্য সেবা মূলক কাজ করে যাচ্ছেন বগুড়া অঞ্চলে ।

গতকাল দি পাথফাইন্ডার পাবলিকেশন্স এর উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয় । দি পাথফাইন্ডার পাবলিকেশন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সুলতানা আখতার মহীয়সীকে বলেন-

“দি পাথফাইন্ডার পাবলিকেশন্সের চেয়ারম্যান মহোদয়,সম্মানীত ডিরেক্টরগণ ও শুভাকাঙ্খীদের   এ মহতী উদ্যোগকে মহান রাব্বুল আ’লামীন কবুল করুন ৷ আমীন ৷
জ্ঞানপিপাসুদের জন্য বই প্রকাশের সাথে যোগ হলো সমাজের অসহায় মানুষের জন্য ভালোবাসা পৌঁছে দেবার কাজটিও ৷ আশাকরি ভবিষ্যতে এই মহতী কাজ অব্যাহত থাকবে ইনশা আল্লাহ ৷ বয়োবৃদ্ধদের মাঝে এই ভালোবাসা পৌঁছে দেবার দায়িত্বটি পড়েছিল আমাদের উপর ৷ আলহামদুলিল্লাহ ৷ আমাদের টীম সুন্দরভাবে সে কাজটি সম্পন্ন করেছে ৷ প্রচণ্ড ঠান্ডায়ও তাদের কর্তব্যে ত্রুটি করেনি ৷ উপযুক্ত মানুষদের হাতেই পৌঁছে দিয়েছে সে ভালোবাসা ৷ সবার এ কষ্টকে আল্লাহ কবুল করুন ৷ আমীন ৷”

“নারীরা শুধু স্বামীর সংসার দেখবে আর বাচ্চা পালবে” এই তার গণ্ডি ও কাজের পরিধি ।  এই ধারায় যেন প্রচলিত আমাদের সমাজে; কি হিন্দু, কি মুসলিম সব পরিবারে একই নিয়ম । স্বামীর সংসার দেখাশুনা ও সন্তান লালনের বাইরে নারীর আর যেন কোন দায়িত্ব ও কর্তব্য নেই । কিন্তু এই সামাজিক ধারা যে সঠিক না তা চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছেন পাথফাইন্ডারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সুলতানা আখতার ।

স্বামী ও সন্তান লালনের বাইরে সামাজিক সেবা মূলক কাজে আমরা সাধারণত তথাকথিত আধুনিক ধারার নারীদের অংশগ্রহণ দেখি । ধার্মিক ও পর্দায় আবৃত নারীদের কম দেখা যায় । কিন্তু সুলতানা আখতার একজন পুরো দস্তুর ধার্মিক ও পর্দানশীল মহিলা । স্রষ্টার প্রেরিত শ্রেষ্ঠ সৃষ্টি হিসাবে তিনি সমাজের জন্য সেরা কাজটি করার চেষ্টা করে যাচ্ছেন । আল্লাহ তার ও তার টিমের সমস্ত কার্যক্রম কবুল করুন আমিন ।

আরও পড়ুন