বিদায় বিষ্মিত বসন্ত

সুমেরা জামানঃ

এবারের বসন্ত পৃথিবীবাসীর জন্য একেবারেই ভিন্ন। বিষ্ময়ের, বেদনার, অার্তনাদের……
উহান রাজ্যের অদৃশ্য যন্ত্রনার আঁচড় এখন প্রতিটি দেশের উনুনঘর পর্যন্ত গিয়ে ঠেকেছে।

প্রতিটি দেশ নিজেদের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্ন । বিমান, সীমান্ত, ঘর, বাহির… সবখানে কড়া নজরদারী। যেন অদৃশ্য সেই যন্ত্রনাদানকারী জন্তু প্রবেশ করতে না পারে।

যদিও কোন বারুদের ঝাঁজ  নেই, মাথার উপর বোঁ বোঁ শব্দে যুদ্ধ বিমান উড়ছেনা,
বোমা হামলার বিকট শব্দে ঘুম ভাঙ্গছেনা
তবু সবাই এই অদৃশ্য জীবটার ভয়ে নিজেকে করে ফেলেছে গৃহবন্দী।

এবারের এই বসন্ত পৃথিবী
স্মরণ রাখবে, ইতিহাস করে রাখবে বইয়ের পাতায়, হয়তো কোন কবি প্রিয়াকে তার ভালবাসার গভীরতা বুঝাতে উপমা দিবে এই করোনার!

তবু আমরা থেমে নেই।
নিয়ম করে চলছে আমাদের সব।
দুবেলা চা…..বইয়ের পাতাতে সন্ধ্যের দাগ…..ছবির খাতাতে ক্যালিওগ্রাফি…
আর স্কুলে বাচ্চাদের সাথে সারা মাস ধরে   উদযাপন করেছি বসন্ত।

স্কুলটা শুধু পড়ার জায়গা না এটা ওদের বুঝাতে পেরেছি। সব শিখতে হবে। তবে সবার  আগে জরুরী শিষ্টাচার। তারপর প্রতিকুল পরিবেশে নিজেদের টিকিয়ে রাখার কৌশল।

অন্ততপক্ষে বাচ্চাদের কিছু শিখাতে চাইলে তাদের হৃদয়ে পৌঁছানো জরুরী।
জানিনা কতটুকু পেরেছি ওদের আনন্দের সাথে পাঠদান করতে তবে ওরাও আমাকে ভালোবেসে অনেক কিছু করেছে ফাগুনের শেষ দিন।

জানিনা এমন বসন্ত
আর কখনও আসবে কিনা……
ভালোবেসে ফেলেছি এদের…..
এই মেঠো পথ…. এই গ্রাম…..
এই নদী……জলপাই পাতা…
জংলী ফুল আর তা দিয়ে গাঁথা মালা।

হয়তো বদলে যাবে পৃথিবী
হয়তো বদল হবে বসন্ত
হয়তো থাকব হয়তোবা না
থেকে যাবে শুধু এই স্মৃতি
বিদায় বসন্ত……

লেখকঃ কবি ও সাহিত্যিক। 

আরও পড়ুন