রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভাইস চ্যান্সেলর আলতাফ হোসেন আর নেই

॥ প্রফেসর আলতাফ হোসেনের ইন্তিকাল ॥
বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও গবেষক রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য (ভিসি)প্রফেসর ড. এম. আলতাফ হোসেন ৫ নভেম্বর ২০২০ বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা ৩০ মিনিটে রাজশাহী মহানগরীর উপশহরে নিজ গৃহে ইন্তিকাল করেন। ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।
তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদরের চাঁদলাই গ্রামে ১৯৪৫ খ্রিষ্টাব্দের ১ জানুয়ারি জন্মগ্রহণ করেন। পিতা ইসাহাক বিশ্বাস (ইসহাক সাহু) ও মাতা আফরোজা বেগম এবং স্ত্রী প্রফেসর সুফিয়া বেগ (প্রফেসর আমিনুল হক বেগের বোন)।
জনাব আলতাফ ১৯৬০ খ্রিষ্টাব্দে চাঁপাইনবাবগঞ্জের হরিমোহন হাইস্কুল থেকে ম্যাট্রিক, রাজশাহী কলেজ থেকে ১৯৬২ খ্রিষ্টাব্দে আই.এস.সি ও ১৯৬৪ খ্রিষ্টাব্দে বি.এস.সি, ১৯৬৬ খ্রিষ্টাব্দে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এম.এস.সি এবং ১৯৭৫ খ্রিষ্টাব্দে ভারতের অন্ধ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়ালটিয়ার থেকে পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন। এছাড়াও ইংল্যান্ড, যুক্তরাষ্ট্র প্রভৃতি দেশে বিশেষ গবেষণা করেন।
শিক্ষকতার পেশাগত জীবনে তিনি এমএসসি পাশ করার পর চাঁদপুর কলেজে প্রাণীবিদ্যার প্রভাষক ওপরে ১৯৬৮ খ্রিষ্টাব্দে তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে সহকারী অধ্যাপক হন। ১৯৭৩ খ্রিষ্টাব্দের মার্চে তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণীবিদ্যা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক হিসেবে যোগ দিয়ে প্রফেসর হিসেবে ২০১০ খ্রিষ্টাব্দে অবসর গ্রহণ করেন।
তিনি এই বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য হিসেবে ১৯৯৪ খ্রিষ্টাব্দের ২৭ আগস্ট থেকে ১৯৯৬ খ্রিষ্টাব্দের ৭ অক্টোবর পর্যন্ত এবং উপাচার্য হিসেবে ২০০৫ খ্রিষ্টাব্দের ৫ জুন থেকে ২০০৮ খ্রিষ্টাব্দের ১৫ মে পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। এর আগে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভাগীয় সভাপতি, জীব ও ভূবিজ্ঞান অনুষদের ডিন, ইনস্টিটিউট অব বায়োলজিক্যাল সায়েন্স-এর পরিচালক প্রভৃতি পদে দায়িত্ব পালন করেন।
তিনি একজন বিশিষ্ট গবেষক। মিঠা পানির মৎসসম্পদের উপর নিজে গবেষণা করে এবং অন্যদের প্রশিক্ষণ দিয়ে বিশেষ খ্যাতি অর্জন করেন। একাজে তিনি দেশের অভ্যন্তরে ছাড়াও এশিয়ার বিভিন্ন দেশ সফর করেন। বহুসংখ্যক গবেষক তাঁর অধীনে উচ্চতর গবেষণা সম্পাদন করেন। তিনি একক ও যৌথভাবে ৮টি গ্রন্থ রচনা করেন- যেগুলো উচ্চশ্রেণিতে পড়ানো হয়। স্ত্রী সুফিয়া বেগ ২০০৫ খ্রিষ্টাব্দে সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে অবসরগ্রহণ করেন।
তাঁদের এক পুত্র ও ২ কন্যা রয়েছে। কন্যা সাবিনা সুলতানা ইগার রাজশাহী বিশ্ব বিদ্যালয়ে প্রাণীবিদ্যা বিভাগে অধ্যাপনা পেশায় যুক্ত আছেন।

বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, গবেষক ও গ্রন্থলেখক প্রফেসর মুহম্মদ এলতাসউদ্দিন প্রফেসর আলতাফ হোসেনের বড় ভাই।
মরহুমের জানাজা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে নামাজ বাদ জোহর অনুষ্ঠান শেষে চাপাইনবয়াবগঞ্জ চাঁদলাই পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করার কথা। নিচে: প্রফেসর আলতাফ হোসেনের ছবি।

(সংগ্রহ: সরদার আবদুর রহমান গ্রন্থিত 'বরেন্দ্র চরিতকোষ' বই থেকে।)
আরও পড়ুন