সাংবাদিক ভাইয়ের কোলে সাংবাদিক বোনের লাশ

এই ছবিটা দেখে আমি গতকাল থেকেই কাঁদছি। যতবার দেখছি, চোখের জল ধরে রাখতে পারছি না! আহারে বোন! আহারে ভাই! অসুস্থ বোনের মাথায় হাত রেখে নীরবে চোখের জল ঝরাচ্ছে এক অসহায় ভাই!

ভাই-বোন দুজনই ফটো সাংবাদিক। রাজধানীর দুটি নামকরা দৈনিক সংবাদপত্রে কাজ করেন তারা। বোন রেহানা আক্তার দৈনিক ইত্তেফাকে এবং ভাই ফোজিত শেখ বাবু দৈনিক আলোকিত বাংলাদেশে কাজ করেন। রেহানা ক্লোন ক্যান্সারে আক্রান্ত। ভাই বাবু বোনকে নিয়ে ছুটছেন ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে। কিন্তু কোন কোথাও তার কেমোথেরাপি দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। হাসপাতাল থেকে বলা হচ্ছে, কেমোথেরাপির ব্যবস্থা নেই। বড় বড় ভিআইপি হাসপাতালে যাওয়ার সামর্থ্যও নেই ভাইটির। সম্প্রতি তিনি অপসারিত হয়েছেন পত্রিকা অফিস থেকে। সেখানে তার পাওনা আছে প্রায় ৬ লাখ টাকা। তারাও টাকা দিচ্ছে না। বার বার অনুনয়-বিনয় করেও টাকা পাচ্ছেন না ভাই। এমনকি তিনি আলোকিত বাংলাদেশ-এর সম্পাদক-প্রকাশকের কাছে এমনও আর্জি করেছেন যে, ‘আপনাদেরতো ক্যান্সার হাসপাতাল আছে। সেখানে আমার বোনকে কেমোথেরাপি দিন, যা বিল আসে আমার পাওনা থেকে কেটে নেবেন।’ এমন মানবিক আবেদনও রক্ষা করেনি তারা। ফলস্বরূপ গত ২৯ জুন সন্ধ্যায় দুই কন্যা সন্তানকে রেখে এবং অসহায় ভাই বাবুকে কাঁদিয়ে চিরদিনের জন্য চলে গেলেন রেহানা!

বোন রেহানা আক্তার, ওপারে তুমি যেমনই থাকো, ক্ষমা করে দিও। আমরা এমন বাংলাদেশ দেখবো বলে ৫২, ৭১ এবং ৯০-এ রক্ত ঝরাইনি। তুমি বিধাতার কাছে বলো, যারা স্বাধীন দেশটার এমন হাল করেছে, তাদেরকে যেন তিনি কোনদিন ক্ষমা না করেন।

আহমেদ জহুর
[email protected]
খিলগাঁও, ঢাকা

আরও পড়ুন