রাজশাহী জেলার নেতৃত্ব চান তিন নারী নেত্রী

বাতেন আহমেদ, রাজশাহী প্রতিনিধি

আগামী ৮ ডিসেম্বর রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। সম্মেলন ঘিরে চলছে প্রস্তুতি। একই সঙ্গে সম্মেলনের দিন ঘোষণার পর অনেকেই প্রস্তুতি নিয়েছেন শীর্ষ পদগুলাতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে। তারা নিজের পক্ষ প্রচার প্রচারণা চালানোর পাশাপাশি কেন্দ্রে লবিংয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। এ তালিকায় রয়েছেন তিনজন নারী নেত্রী। যাদের মধ্যে একজন সভাপতি ও দুইজন সাধারণ সম্পাদক পদ পাওয়ার আশায় কেন্দ্র থেকে শুরু করে তৃণমূলের নেতাদের সমর্থন আদায়ে চেষ্টা চালাচ্ছেন তারা।

এরা হলেন, সাবেক এমপি ও জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আক্তার জাহান, সংরক্ষিত আসনের এমপি ও জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য এবং যুব মহিলা লীগের সহসভাপতি অ্যাডভোকেট আবিদা আনজুম মিতা এমপি এবং জেলা মহিলা লীগের সভাপতি মর্জিনা পারভীন। এদের মধ্যে আক্তার জাহান সভাপতি এবং মিতা ও মর্জিনা সাধারণ সম্পাদক পদ প্রত্যাশী।

মর্জিানা পারভীন বলেন, ‘‘দীর্ঘদিন ধরেই তিনি সহযোগি সংগঠনের গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। দুইবার এমপির মনোনয়ন চেয়ে বঞ্চিত হয়েছি। এবার আশা করছি জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আমাকে মূল্যায়ন করা হবে।’’

আদিবা আনজুম মিতা বলেন, আমি দীর্ঘদিন যাবত আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত আছি। সে জন্য জেলা আওয়ামী লীগকে সুসংগঠিত করার জন্য কাজ করছে চাই। দলের দূর্দিনের ত্যাগী নেতাকর্মীদের মূল্যায়ন করে আওয়ামী লীগকে এগিয়ে নিতে সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে আগ্রহী। আশা করে দলের নেতারা আমাকে মূল্যায়ন করবেন।

অপরদিকে, সাধারণ সম্পাদক পদে এবার আলোচনায় রয়েছেন, রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনের দুইবারের এমপি আয়েন উদ্দিন, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও বাঘা উপজেলা চেয়ারম্যান লায়েব উদ্দীন লাভলু, জেলা কৃষক লীগের সভাপতি রবিউল আলম বাবু, বাগমারা উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান জাকিরুল ইসলাম সান্টু, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মোস্তাফিজুর রহমান মানজাল, বর্তমান সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম আসাদুজ্জামান, আলফোর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক গোলাম ফারুক, জেলার দপ্তর সম্পাদক ফারুক হোসেন ডাবলু। সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী হিসেবে এদের পক্ষে প্রচার চালছে বিভিন্নভাবে।

 

আরও পড়ুন