ইরানের নতুন অ্যান্টি-করোনা মেডিসিন “Tocilizumab” উৎপাদন  ও  চীনকে দান

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ইরানের একটি ঔষুধ কোম্পানি করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে নতুন আর একটি ঔষুধ উৎপাদন করেছে । যা ইতোপূর্বে চীনের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য অনুদান হিসাবে পাঠানো হয়েছিল এবং বেশ ভালো ফল পাওয়া গেছে ।

ইরানের খাদ্য ও ঔষুধ প্রশাসনের এক কর্মকর্তা হায়দার মোহাম্মদী জানিয়েছেন যে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধী ঔষধ “Remdesivir” এর পাশাপাশি কোভিড-১৯-এর প্রতিরোধে এর চেয়ে উন্নত ঔষুধ তৈরিতে মার্কিন খাদ্য ও ঔষুধ প্রশাসন কর্তৃক অনুমোদন দেওয়া হয়েছে ইরানকে।

তিনি বলেছেন এই ঔষুধটি এখনও ঔষুধর সাধারণ বাজারে ছাড়া হয়নি এবং এই ঔষুধ এর কিছু অংশ আগেই চীনকে দান করা হয়েছিল, যা এখনও হাসপাতালে ব্যবহৃত হয় ।

তিনি আরও বলেছেন যে, “Tocilizumab” এর Subcutaneous Injection বা Actemra, যা রিউম্যাটিজমের (বাত) চিকিৎসার জন্য ব্যবহৃত হয় আর এর Intravenous Injection টি COVID-19 রোগীদের জন্য ব্যবহৃত হয়। ইহা একটি ইরানি ফার্মাসিউটিক্যাল সংস্থা উৎপাদন করেছে ।

তিনি আরও বলেন  সম্ভবত আগামী সপ্তাহে ক্লিনিকাল ট্রায়ালগুলো এবং পরীক্ষাগুলো খাদ্য ও ঔষুধ প্রশাসন কর্তৃক অনুমোদিত হবে এবং সম্ভবত দু’মাস পরে এটি বাজারে ছাড়া হবে এবং এটি হাসপাতালে বিতরণ করা হবে ।

তিনি উল্লেখ করে বলেছিলেন- এখনও পর্যন্ত বিশ্বে করোনাভাইরাসের কার্যকর এবং নির্ভরযোগ্য  চিকিৎসার জন্য নির্দিষ্ট কোনও ঔষধ সেভাবে সনাক্ত করা না গেলেও ইরান এর আগে করোনভাইরাস রোগীদের চিকিৎসার জন্য অ্যান্টিভাইরাল এজেন্ট “Remdesivir” তৈরি করেছিল।

ইউরোপ এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে করোনা ভাইরাসজনিত রোগীদের জন্য Remdesivir এবং Actemra বেশ ব্যবহৃত হচ্ছে । এর আগে ইবোলা ভাইরাস সংক্রমণের জন্য ক্লিনিকাল ট্রায়ালের জন্য  Remdesivir এবং  Acterma (Tocilizumab) ব্যবহার করা হয়ে আসছিল ।

২০০৩ সালে Severe acute respiratory syndrome coronavirus (SARS-CoV) তথা গুরুতর তীব্র শ্বাসতন্ত্র সিন্ড্রোম করোনাভাইরাস (এসএআরএস-কোভি) এবং ২০১২ সালে Middle East respiratory syndrome coronavirus (MERS-CoV) তথা মধ্য প্রাচ্যের শ্বাসতন্ত্র সিন্ড্রোম করোনভাইরাস (এমআরএস-কোভি) সহ টিস্যু কালচার  উচ্চতর উপসর্গের রোগের সাথে সম্পর্কিত অন্যান্য মানব করোনভাইরাসগুলির প্রতিলিপি প্রতিরোধক হিসাবে Remdesivir কাজ করতে দেখা গেছে।

সোমবার পর্যন্ত ইরানে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তির সংখ্যা ২৯৩৬০৬ জন । যাদের মধ্যে ১৫৯১২ জন মারা গেছে এবং ২৫৫১৪৪ জন করোনা থেকে সুস্থ হয়েছে ।

ইরানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সীমা সাদাত লরি জানিয়েছেন- গত ২৪ ঘন্টায় ইরনে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়া নতুন রোগী ২৪৩৪ জন এবং মারা গেছেন ২১২ জন । তিনি আরো জানান যে বর্তমানে করোনাভাইরাস আক্রান্ত ৩৮৮১ জন রোগীর অবস্থা আশঙ্কাজনক।

সূত্রঃ তেহরান টাইমস

আরও পড়ুন