সমুদ্রের নীচে মাইক্রোসফটের ডাটা সেন্টার!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ভূমিতে অবস্থিত সার্ভারগুলি শীতল করার জন্য যে শক্তি ও অর্থ ব্যয় হয় তা কমানোর জন্য প্রায় দুই বছর আগে উত্তর স্কটল্যান্ডের অরকনি দ্বীপপুঞ্জে একটি প্রকল্প হাতে নিয়েছিল মাইক্রোসফট । সমুদ্রের নীচে একটি ডেটা সেন্টার ডুবিয়ে দেয়া হয়েছিল দুই বছর আগে । মাইক্রোসফ্ট অবশেষে পরীক্ষার ফলাফল অধ্যয়নের জন্য সমুদ্রের নীচ থেকে কম্পিউটারগুলিকে ধারণ করা সিলিন্ডারটি উদ্ধার করে যা পরীক্ষা মূলক ডাটা সেন্টারে রাখা হয়েছিল ।

গতকাল সোমবার তারা ঘোষণা করেছে যে সমুদ্রের নীচে ডাটা সেন্টার স্থাপন করা সম্ভব। এর প্রধান উদ্দেশ্য হচ্ছে উতপ্ত তাপ নিবারণের জন্য শীতল করতে যে ব্যয় হয় তা কমানো ।

৪০ মিলিয়ন- (১২.২-মিটার-) দীর্ঘ সাদা সিলিন্ডারযুক্ত একটি যাতে ৮৬৪ সার্ভার রয়েছে ।প্রায় ৫ মিলিয়ন সিনেমা সঞ্চয় করার জন্য যথেষ্ট – ডেটা সেন্টারগুলির বিকল্প শীতল সমাধানের পরীক্ষামূলক পরীক্ষা হিসাবে ডেটা সেন্টারটি জুন ২০১৮ সালে সমুদ্রে নিমজ্জিত করা হয়েছিল।

পরীক্ষার লক্ষ্য হ’ল ডুবোজাহাজের কেন্দ্রস্থলে ডেটা সেন্টারগুলি তৈরির কার্যকারিতা মূল্যায়ন করা এবং শীতলকরণের বিষয়টি বিনামূল্যে করার ব্যবস্থা করা । এই শীতলীকরণের জন্যই  ভূমি ভিত্তিক ডেটা সেন্টারগুলির জন্য অনেক  ব্যয় হয় । জমিতে একটি ডেটা সেন্টার নির্মাণের চেয়ে অফশোর বা সমুদ্রের নীচে ডেটা সেন্টার স্থাপন করে আরও দ্রুত এবং কম খরচে কাজ করা সম্ভব বলে মনে করছেন মাইক্রোসফটের বিশেষজ্ঞরা ।

সূত্রঃ ডেইলি সাবাহ

 

আরও পড়ুন