২৭ বছর পর বিল ও মেলিন্ডা গেটসের বিবাহ বিচ্ছেদ!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

বিলের ২৭ বছর পর বিল এবং মেলিন্ডা গেটস তাদের বিবাহবিচ্ছেদের ঘোষণা দিয়েছেন । পৃথিবীতে ভালো কাজের নেতৃত্ব দেয়া এতো সুন্দর ও জনহিতকর কাজ করা দম্পতি হুট করে নিজেদের বিবাহ বিচ্ছেদের ঘোষণা দিয়ে বসলেন ।

টু্ইটার বার্তায় বিল ও মেলিন্ডা উভয়ই একই বার্তা জানান –

“গত ২৭ বছরে আমরা অসাধারণ তিনটি সন্তান পেয়েছি। এমন একটা ফাউন্ডেশন গড়ে তুলেছি, যে ফাউন্ডেশন বিশ্বজুড়ে মানুষকে স্বাস্থ্যকর ও সক্ষম করে গড়ে তুলতে কাজ করছে। আমরা যে বিশ্বাস থেকে ওই ফাউন্ডেশনের যাত্রা শুরু করেছি, সেটা থাকবে। এই ফাউন্ডেশনের কাজ একসঙ্গে চালিয়ে যাব। কিন্তু আমরা আর এটা বিশ্বাস করতে পারছি না যে, আমাদের জীবনের পরের ধাপে দম্পতি হিসেবে আমরা একসঙ্গে থাকতে পারব।”

 

 

 

 

 

যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী লেখিকা দিলরুবা আহমেদ তার ফেসবুকে দুঃখ প্রকাশ করে পোস্ট দেন,

“কি বেদনাদায়ক!বিল গেটস এর ২৭ বছরের সংসার ভেঙে যাচ্ছে !!আমার কেবলি মনে হচ্ছে, এ কি হলো!যদিও আমি কিন্তু দেখি এই আমেরিকায় অনেকে ভালোই একা ! আমাদের পরিচিত এক বাংলাদেশী ভাই -ভাবীর ডিভোর্স হয়ে গেলো ৩০ বছর সংসারের পর !নিঃসন্দেহে ভয় পাইয়ে দেয় এমন ঘটনাগুলো !মনে হয় না আপনাদেরও আমারই মতো, কি অনিশ্চিত এই জীবনযাপন !! নিজের বর আমার সংসারের দিকে কড়া নজর রাখুন ভাবীরা ।”

১৯৮০ এর দশকে মেলিন্ডা বিলের মাইক্রোসফ্ট ফার্মে যোগ দেওয়ার পরে তাদের প্রথম দেখা হয়েছিল। বিলিয়নেয়ার দম্পতির তিনটি সন্তান রয়েছে এবং তারা যৌথভাবে বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন পরিচালনা করে।

১৯৮৭ সালে মেলিন্ডা একজন প্রোডাক্ট ম্যানেজার হিসাবে বিল গেটসের মাইক্রোসফ্টে যোগ দিয়েছিলেন এবং তারা দুজন এঁকে অপরকে আস্তে আস্তে ভালোবেসে ফেলেন এবং পরবর্তীতে ১৯৯৪ সালে লানাইয়ের হাওয়াই দ্বীপে তাদের বিয়ে হয়েছিল, অতিথিকে ঐ দ্বীপে নিয়ে যাবার জন্য সমস্ত স্থানীয় হেলিকপ্টার ভাড়া করেছিলেন বলে জানা গেছে।

ফোর্বস সাময়িকীর তথ্যমতে, বিশ্বের ধনী ব্যক্তিদের তালিকায় বিল গেটসে চতুর্থ অবস্থানে আছেন। তার সম্পদের পরিমাণ ১২৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। তিনি বিশ্বের অন্যতম ধনী ওয়ারেন বাফেটের সঙ্গে ‘দ্য গিভিং প্লেজ’ উদ্যোগের সঙ্গে জড়িত। এই উদ্যোগের লক্ষ্য হলো বিশ্বের শীর্ষ পর্যায়ের ধনীদের সম্পদের একটি বড় অংশ দাতব্য কাজে লাগানো। বিল গেটস তাঁর জনহিতকর কর্মকাণ্ডে মনোনিবেশ করতে গত বছর মাইক্রোসফ্টের বোর্ড থেকে পদত্যাগ করেছিলেন।

আরও পড়ুন