স্টিলময় ভালোবাসা

 

আমার বাসায় যে মহিলা ভাত রান্না করেন ২৬ বছর ধরে, তিনটি কন্যা সন্তানের জননী। তার সাথে মোটে বনিবনা হয় না আমার। ভীষণরকম বকাঝকা করি।তিনি অভিযোগ করেন — মেয়েমানুষ বলে আমি কি মানুষ না।
আমি বলি– তুমি আবার কিসের মানুষ, তোমাকে কে মানুষ বানিয়েছে? হা হা হা! মন তো জানে ভিন্ন কথা।

এইযে ভীষণ অসুস্থতার মধ্যে ছিলাম। আমার ১০০% ধারণা কোভিডগ্রস্ত ছিলাম আমি। তাকে দূরে থাকতে বলেছি। সে তার মারাত্মক বেপরোয়া স্বভাবের জন্য ভয়কে জয় করেছে। সারারাত আমার মাথায়, হাতে-পায়ের তলায় শুধু তেল মালিশ করতো। সারাটা রাত ঘুমাতো কিনা জানি না, তবে যখনি আমি একটু সজাগ হতাম, দেখতাম সে আমার কপাল চেপে ধরে বসে আছে, তার মৃত্যুভয় নাই। সে বেপরোয়া। তাকেই ছলে ছুতোয় প্রায়শই বলি– তুমি আবার কিসের মানুষ? তোমাকে আবার কে মানুষ বানালো।
তার কি যাওয়ার জায়গা আছে?
না আমার কোথাও যাওয়ার জায়গা আছে?
সেও আমাকে কম বলে না। সে কোনো সুযোগ হাতছাড়া করতে রাজী না।একটু সুযোগ পেলেই বাঘিনীর মত আক্রমণ করে বসে। এই তো, ঢিমেতালে চলছে তো চলছেই জীবন নামের রেলগাড়ি। এখান থেকে পালাবার কোনো রাস্তা আছে? না, নেই।

এর নাম স্টেইনলেস স্টিলের তৈরি ভালোবাসা।ঠুসঠাস করে পড়ে,আছাড় খায়, টোলপড়ে,দুমড়ে মুচড়ে যায়, কিন্তু ভাঙে না।
কারণ, এটা স্টেইনলেস স্টিলের তৈরি।

আমাদের ভালোবাসা হোক স্টেইনলেস স্টিলের ভালোবাসা। আছাড় খাবে, বাঁকা হবে,টোল পড়বে কিন্তু ভাঙবে না।
এটা আমার মনের বড় আশা, সবার কাছে।

লেখকঃ আবু সাইফা, মহীয়সী এ্যাডমিন,কবি ও সাহিত্যিক।

আরও পড়ুন