Ads

ভারতের NEET তথা মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম আমিনা

।। আন্তর্জাতিক ডেস্ক, মহীয়সী ।।

ন্যাশনাল এলিজিবিলিটি কাম এন্ট্রান্স টেস্ট  NEET (UG) মূলত ভারতের ন্যাশনাল টেস্টিং এজেন্সি (NTA)  কর্তৃক পরিচালিত মেডিকেল প্রতিষ্ঠানে স্নাতক মেডিকেল শিক্ষায় ভর্তির জন্য  একটি প্রবেশিকা পরীক্ষা ।

এটি মূলত বাংলাদেশের মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার মতো একটি পরীক্ষা । গত ৫ মে ২০২৪ রবিবার বিদেশের ১৪টি শহরসহ ভারতের ৫৭১টি শহরের ৪,৭৫০টি কেন্দ্রে  মেডিকেলের এই প্রবেশিকা পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

২০২৪ সালের NEET  পরীক্ষায় মুম্বাইয়ের এক বেকারিতে কাজ করা কর্মচারীর সন্তান আমিনা আরিফ কাদিওয়ালা সর্বভারতীয় র‍্যাঙ্ক All India Rank (AIR) এ প্রথম স্থান অর্জন করেছেন। আমিনা আরিফ কাদিওয়ালা NEET পরীক্ষায়  ৭২০ নম্বরের মধ্যে ৭২০ নম্বরই পেয়েছেন । NEET পরীক্ষায় ভারতীয় বিভিন্ন অঙ্গরাজ্য থেকে ৪,৭৫০টি কেন্দ্রে প্রায় ২৫ লক্ষ  ছাত্র ছাত্রী অংশ গ্রহণ করে ।

আরও পড়ুন-ভারতের বিস্মৃত স্বাধীনতা সংগ্রামী মাওলানা আবুল কালাম আজাদ

তবে এই পরীক্ষায় আমিনা আরিফসহ ৬৭ জন যৌথভাবে শীর্ষ স্থান অর্জন করেছেন ।  এক সাথে এতো জন শীর্ষ স্থান অধিকার করায় ভারত জুড়ে চলছে এই পরীক্ষায় অনিয়মের বিষয়ে নানা জল্পনা- কল্পনা । অনেকে ধারণা করছেন পরীক্ষা বুঝি সুষ্ঠুভাবে হয়নি । তবে  ন্যাশনাল টেস্টিং এজেন্সি (এনটিএ) সব ধরণের অনিয়মের অভিযোগ অস্বীকার করেছে এবং বলেছে যে এনসিইআরটি পাঠ্যপুস্তকে করা পরিবর্তন এবং পরীক্ষা কেন্দ্রগুলিতে সময় হারানোর জন্য প্রদত্ত গ্রেস মার্কগুলি শিক্ষার্থীদের উচ্চ নম্বর পাওয়ার পিছনে কিছু কারণ হয়ে থাকতে পারে।

আরও পড়ুন-নামাজ নামাজীকে মন্দ কাজ থেকে ফিরাতে পারে না কেন ?

এমবিবিএস পড়ার ব্যাপারে আশাবাদী ও উচ্চাকাঙ্ক্ষী আমিনা আরিফ কাদিওয়ালা  দশম শ্রেণি পর্যন্ত উর্দুতে মিডিয়ামে পড়াশোনা করেছেন । তিনি যোগেশ্বরীর মদনি হাই স্কুলে তার স্কুলের পড়াশোনা শেষ করেন এবং পরবর্তীতে এসভিকেএম-এর মিথিবাই কলেজে ভর্তি হয়েছিলেন। কলেজ শেষে মেডিকেলের NEET পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য প্রস্তুতি নেয়ার প্রথম দিকে আমিনা আরিফ বেশ টেনশনে ছিলেন ।  কারণ তিনি ইংরেজিতে তুলনামূলকভাবে দুর্বল ছিলেন । কারণ দশম শ্রেণী পর্যন্ত তিনি উর্দু মিডিয়ামে পড়াশুনা করেছেন । ফল প্রকাশ হলে তিনি বলেন যে, “এটি তার জন্য একটি চ্যালেঞ্জ ছিল কারণ সে ইংরেজিতে দুর্বল ছিল, কিন্তু ধীরে ধীরে সে ভাষা শিখেছে এবং পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে”।

নিজের কৃতিত্বের ব্যাপারের আনন্দ প্রকাশ করে তিনি বলেন, “আমি অভিভূত এবং খুব খুশি। আমার কঠোর পরিশ্রমের প্রতিদান  আমি পেয়েছি।”

NEET প্রস্তুতির সময় তিনি সবচেয়ে বড় যে চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়েছিলেন সে সম্পর্কে কথা বলতে গিয়ে নিজের লেখার গতির কথা উল্লেখ করেছেন। তিনি দ্য ফ্রি প্রেস জার্নাল (এফপিজে) কে বলেন, “আমি খুব ধীরগতির ছিলাম এবং আমার আগের পরীক্ষাগুলো সময়মতো শেষ করতে পারিনি।” তিনি আরও বলেন  যে, “মক পেপার অনুশীলন করা এবং প্রতিদিনের নিয়মিত অধ্যয়ন তার উন্নতিতে সাহায্য করেছে।

আরও পড়ুন- মুসলমানের রক্তে লেখা ভারতের স্বাধীনতা

আমিনা আরিফ দিল্লির AIIMS (All India Institute of Medical Science) এ মেডিকেলের পড়াশুনা করবেন বলে জানিয়েছেন । হিজাবধারী একজন মুসলিম ছাত্রী সর্ব ভারতীয় মেডিকেল প্রবেশিকা পরীক্ষায় শীর্ষ স্থান অধিকার করায় ভারতের মুসলিমদের মাঝে বেশ উচ্ছ্বাস দেখা যায় । সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আমিনা আরিফকে নিয়ে সবাই বেশ উচ্ছ্বাস প্রকাশ করছেন বিভিন্ন মন্তব্য ও পোস্টের মাধ্যমে ।

মুর্শিদাবাদের ছেলে এবং মাওলানা আবুল কালাম আজাদ প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র আদিল রাইয়ান বলেন, “আবারও প্রমাণিত পর্দা প্রগতির অন্তরায় নয় বরং পর্দা-হিজাব, শালীন-পোষাক হল অগ্রগতির সোপান, নারীর সন্মান, মর্যাদা।”

বারাসাতের পরিচয় প্রকাশনীর ম্যানেজিং ডিরেক্টর সাবির গাজী বলেন,

“সর্বভারতীয় নিট (NEET) পরীক্ষায় ২৫ লক্ষ ছাত্র ছাত্রীর মধ্যে প্রথম হয়েছেন আমিনা আরিফ। তাকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানাই। আমাদের লড়াই এভাবেই চলুক।”

সূত্রঃ হিন্দুস্তান টাইমস এবং  দ্যা হিন্দু 

এই বিষয়ে আরও জানতে পড়ুন-

১) NEET UG Result 2024: Mumbai bakery worker’s daughter scores 720/720, 7 from city score full marks

২) Urdu-medium student Amina Arif secures AIR 1 in NEET UG 2024

৩) Amina Arif Kadiwala, an urdu medium student from Mumbai bags AIR 1 in NEET UG 2024

…………………………………………………………………………………………………………………………

মহীয়সীর প্রিয় পাঠক ! সামাজিক পারিবারিক নানা বিষয়ে লেখা আর্টিকেল ,আত্মউন্নয়নমূলক অসাধারণ লেখা,গল্প,কবিতা পড়তে মহীয়সীর ফেসবুক পেজ মহীয়সী / Mohioshi  তে লাইক দিয়ে মহীয়সীর সাথে সংযুক্ত থাকুন। আর হা মহীয়সীর সম্মানিত প্রিয় লেখক!  আপনি আপনার  পছন্দের লেখা পাঠাতে পারেন আমাদের ই-মেইলে-  [email protected]  ও  [email protected] ; মনে রাখবেন,”জ্ঞানীর কলমের কালি শহীদের রক্তের চেয়েও উত্তম ।” মহীয়সীর লেখক ও পাঠকদের মেলবন্ধনের জন্য রয়েছে  আমাদের ফেসবুক গ্রুপ মহীয়সী লেখক ও পাঠক ফোরাম ; আজই আপনিও যুক্ত হয়ে যান এই গ্রুপে ।  আসুন  ইসলামী মূূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রজন্ম গঠনের মাধ্যমে সুস্থ,সুন্দর পরিবার ও সমাজ গঠনে ভূমিকা রাখি । আল্লাহ বলেছেন,“তোমরা সৎ কাজে প্রতিযোগিতার মাধ্যমে এগিয়ে চলো ।” (সূরা বাকারা-১৪৮) ।আসুন আমরা বুদ্ধিবৃত্তিক কাজের মাধ্যমে সমাজে অবদান রাখতে সচেষ্ট হই। আল্লাহ আমাদের সমস্ত নেক আমল কবুল করুন, আমিন ।

আরও পড়ুন