কবিতা

নোঙর
    -আবুবকর সালেহ
উৎসর্গঃ কবিতার সুনিপুণ কারিগর  Nurealam Mukta ‘র  কাব্য বন্দরে নোঙর ফেলা হলো।
আমি হৃদয়ের  তীরে ভিড়াতে চেয়েছিলাম আমার কবিতার নোঙর
পেরিয়ে এসেছি ঝঞ্ঝা বিক্ষুব্ধ কত দুস্তর ব্যবধান
কত উপদেশ, নিষেধাজ্ঞা! মানিনি কালাপানির প্রতিরোধ
শুনিনি কারও পিছু ডাক।
আমাকে করা হয়েছে দ্বীপান্তর,  তাইতো একঘরে হয়ে আছি সহানুভূতিহীন
কী নিঃসংকোচ উপেক্ষা!
আমার সামনে তুলে দিয়েছে অনতিক্রম্য প্রাচীর।
ওরা কারা?
ওরা কি জানে সমন জারী করে দমন করা যায় না
এই সব দুরারোধ্য ব্যাধি?
তাদের জানা উচিত বাতাসের পরিবহনে ভেসে যায়
ভালোবাসার অপ্রতিরোধ্য জীবাণু।
যতোই ছড়িয়ে পড়ুক নিন্দুকের গালগল্প
উর্বর খামারে পুতে দিক ইচ্ছে মতো ঘৃণার বীজ
ছিটিয়ে দিক ভালোবাসা নিধন করার কীটনাশক
তবুও অচল হয় না কারও অদম্য অভিসার।
আমি তো এক নির্বিকার প্রেমিক
অসুস্থ পৃথিবীর শিয়রে বসে
তার তপ্ত মস্তকে সমবেদনার হাত বুলাই
মরণাপন্ন ধরিত্রীকে বাঁচাতে হাকিম কবিরাজের
অষুধ নয়
শুধু একটু ভালোবাসাই সমাধান।
আমি এক নিঃসঙ্গ নাবিক
হৃদয়ের ঘাটেই ফেলেছি আমার ভালোবাসার নোঙর।

 

আবুবকর সালেহ,কবি ও সাহিত্যিক।

আরও পড়ুন