মায়ের জন্য পদাবলি

মায়ের জন্য পদাবলি
     হাসান ওয়াহিদ
শীতমাখা শুকনো সন্ধে নেমে আসে
আমাদের গ্রামের বাড়ির বারান্দায়—
ধুলো আর শিশিরের কণাগুলো অনায়াস দক্ষতায়
সাঁতরে পার হয়ে যাচ্ছে নবান্নের আঁতুড়ঘর।
পাশে দাঁড়িয়ে থাকা সজনেগাছের ছায়াঘন আলোয়
কৈশোর পার হওয়া পাখি
ঠুকরে খেতে শিখে নেয় শিশিরের দানা
অন্তরঙ্গ ভাত বেড়ে দিয়ে
মধ্যরাতে মুখের দিকে তাকিয়ে আছে ভীষণ—
জেগে ওঠে কলতলা… …
সাদা ধবধবে অ্যানিমিয়া মুখ জ্যোৎস্নার মতো শাড়ি
সরুপাড় — ডুবে আছে স্তব্ধতায়।
যন্ত্রণার অসাড় দিনগুলোতে কপালে জলপট্টি
সাবু বার্লি আর আঁচলের তাপ… …
ভেসে ওঠে ছবি — আমার জ্বরের পাশে নিরবে জেগে রয়েছে তাঁর গোপন অনিদ্রা কত রাত।
আমার ইশকুলবেলার ধুলো
ফেলে আসা শৈশবের রোদ
থরে থরে সাজানো আছে তাঁর আঁচলে।
আরও পড়ুন