অাঁধার বলয়ে একা

 

ভিষণ অন্ধকার হয়ে আসছে চারিদিকটায়,,
অর্ধমৃত মানুষের মতো আমি রয়ে গেছি,,
সবুজ ঘাসের রং, বৃষ্টি পল্লব ছুঁয়ে দেখিনা কতোকাল,

আচ্ছা,শুধু আমার আকাশের রংটাই কি
ধূসর করে এঁকেছে কোন শিল্পী,, তার মনে কি
একমুঠো দয়াও হয়নি!!
দিতো না হয় একটু নীলাভ মিশিয়ে,,

জানালার গ্রিলে উঁকি দেয়না কোন
চড়ুই, শালিক,,,আমি কি ধরিত্রীপুরে অপাংতেয়!!

কিন্তু জানো, চোখ বুজলেই
আমার সাজানো গোছানো পরিপাটি
ঘর মন জানালা আমি দেখতে পাই,

শুধু ছুঁতে পারিনা,
ছুঁতে পারি না আমার তোমাকে,,
ফুল,পাখি,নদীর সাথে আজ আমার আড়ি,
বড্ড অভিমানী আজ আমি,কিন্তু
কেউ বোঝেনা,কেউ না,,,
বড্ড ক্লান্ত আমি আজ,,হে ধরিত্রী
আমাকে তুমি কি দেবে একটু সবুজ
আশ্রয়,,
শোধ করে দেবো আমি সব ঋণ
তবুও কি দেবেনা,, একমূঠো
সোনালী ঘাসের, সুবাসিত আশ্রয়।।

 

সুমী শারমীন- কবি,শিল্পীও সাহিত্যিক 

আরও পড়ুন