চক্রাবর্ত

চক্রাবর্ত

তোমার কি খুব মন খারাপ মেয়ে?

চেয়ে দেখ তোমার উনুনে ভাতের হাঁড়ি
কাঠকয়লা সব শেষ, ভাত পোড়া গন্ধ বেরোয়।

পশ্চিমাকাশে কালো মেঘ, ধুলো ওড়া
উতল হাওয়া তোমার উঠোনের তারে
রোদে শুকোতে দেয়া কাপড় উড়ে যায়।

কান পাত,পবন কুল চিরহরিৎ, ঝাঁউবন
মাড়িয়ে শোঁ শোঁ আওয়াজ তুলে
ধেয়ে আসছে তোমার গ্রাম উজাড় করতে।

তুৃৃমি উদাস মনে পথের পানে চেয়ে
বাউল ফেরার অপেক্ষা কর?

অন্য সুরে মন মজে আছে তার
অন্য আখড়ায়।

তুমি বরং কোমর বেঁধে পাড়ার মাঝ ছুটে যাও।
যে শিশুকে ঘরের মেঝেতে রেখে
মা তার ধান কুড়াতে গেছে।
তার কান্না থামিয়ে ঘুম পাড়িয়ে এস।

তুমি বরং বালিকা,কিশোরী যে পথে
বিলের মাঝে শাপলা তুলতে যায়!

ওঁত পেতে থাকা অসুর বধ করতে
দশভুজা রুপে দুর্গাশক্তি ধারণ কর।

এখনো তোমার মন খারাপ?
অশ্বত্থ বৃক্ষের কাছে যাও।

মন খারাপ করা হাওয়া শেষ হলে
উড়ে চলা যে মেঘদল তোমায় ডাকে
তাদের কাছে দুঃখ জমা দাও।

বৃক্ষের কাছে বৃক্ষ হওয়ার বর চেয়ে নাও।

লেখকঃ বিপাশা হাবিব আরজু, কবি ও সাহিত্যিক।

আরও পড়ুন