জাওয়ানানে ইসলাম

মূল: আল্লামা ইকবাল 
কাব্যানুবাদ:জোবায়ের বিন বায়েজীদ

হে নওজোয়ান জেগেছে কখনো ভাবনা তোমার দিলে?
তুমি তো নিজেও আসমান থেকে ঝরে পড়া তারা ছিলে!
এমন এক জাতি লালন করেছে তোমায় আঁচলে নিয়ে,
লালন পালন করেছে তোমায় গাঢ় ভালোবাসা দিয়ে।
যে জাতি স্বয়ং পারস্যের ঐ রাজমুকুটকে পেয়ে,
অবজ্ঞাভরে সরিয়ে দিয়েছে দু’পায়ের নিচে নিয়ে!

সভ্যতা যারা এনেছে যেখানে নিয়ম ছিলো না কোনো,
আরবের সেই মেষপালকের গল্প বলছি শোনো।
বাদশাহীতেও দারিদ্র্যের এক আলিশান ছাপ ছিলো,
তাদের শরীরে সাজসজ্জার কিই-বা দরকার বলো?
অভাবেও তারা মর্যাদাবোধ অটুট রাখতো পুরো,
প্রতাপে তাদের দয়া দেখানোর সাহস হতো না কারো!

সেই মরুদল কেমন ছিলেন কিভাবে তোমারে বলি!
বিশ্ববিজয়ী, রক্ষক তারা ছিল পৃথিবীর মালী!
সেই দৃশ্যকে শব্দবুণণে তোমায় দেখালে তবে,
হৃদয় তোমার কল্পনাতেও অক্ষম হয়ে রবে!

সে জাতির সাথে তোমার কখনো মিলবে না অন্বয়,
তারা তৎপর,কর্মঠ ছিলো! তোমার মতন নয়।
তুমি তো অলস,অস্ত্র তোমার কথা ছাড়া কিছু নাই,
হতেই পারে না কোনো বন্ধন তাদের সাথে তো তাই!

রেখে যাওয়া সেই আমানতটুকু হারিয়ে ফেলেছি বলে,
আসমান থেকে ছিটকে পড়েছি পাতালপুরীর তলে!
ক্ষমতার কথা ভেবে ভাই আর কি লাভ আমার বলো?
সেটা সর্বদা অস্থায়ী আর ভঙ্গুর যেন ছিল।

এই দুনিয়াটা সুবিদিত এক নিয়মের জালে ঘেরা,
সে নিয়ম ভেঙে পালাতে পেরেছে কখন কোথায় কারা?
এ হৃদয় ভেঙে চুরমার হয় ইউরোপে যদি যাই,
আমাদের লেখা কিতাবগুলোকে দেখতে যখন পাই!
ভাবো তুমি আজ কেনানের সেই বৃদ্ধ লোকের কথা,
যার ইউসুফ দুর করেছিল জুলেখার সব ব্যাথা!

কবিঃ পাকিস্তানের জাতীয় কবি

অনুবাদকঃ কবি ও অনুবাদক

আরও পড়ুন