বাঙালীর লকডাউন

 

বাঙ্গালীদের স্বভাব হলো
জগৎ ঘুরে দেখা,
হার্ট এ্যাটাকে মরতে বসে
থাকলে একা একা।

মেলা এবং হাট বাজারে
আড্ডা জমায় খুব,
খোশগল্পের আসর বসে
চায়ের কাপে ডুব।

পাড়ায় পাড়ায় কালুগাজী
বটতলাতে গান,
ধর্ম সভায় লক্ষ মানুষ
কী যে খোদার শান!

তার উপরে জীবন ভরে
কবি লেখকগণ,
একই সাথে থাকার প্রতি
করেন আমন্ত্রণ।

দেশের নেতা ডেকে বলেন
সমস্ত মজদুর,
লড়াই করো একই সাথে
কণ্ঠে একই সুর।

পুজা এবং পার্বণে যেই
পড়ে ঢোলের বাড়ি,
খুশির চোটে লাফিয়ে ওঠে
মৃত লাশের সারি।

সেই জাতিকে হঠাৎ করে
লকডাউনে ফেলা,
মোটে তো নয় সহজ কম্ম
আচ্ছা রকম ঠেলা।

পুলিশ আসুক গদা হাতে
করুক তুলোধুনা,
পিটনি খেয়েও দিব্যি ঘোরে
বাইরে আনাগোনা।

যতই বাঁধো শিকল দিয়ে
কি-বা বাঁশের বেড়া,
সিঁদ কেটে ও বাইরে যাবে
স্বভাবটা যে তেড়া।

 

রফিকুল্লাহ্ কালবী- কবি

আরও পড়ুন