বৃষ্টি বিলাস প্রেম

-সুবর্ণ শৈশব

বৃষ্টি নামছে।ঝুম বৃষ্টি।
ইলশেগুঁড়ির খোলস ছেড়ে ঝুমঝুম বৃষ্টি ঝরছে।
মুষল বৃষ্টিতে কে থাকে ঘরে?
চলনা প্রিয়তমা তোমাকে ভিজিয়ে দেই দামাল বারিধারায়।

হুঁম্ ..এইবার তোমার খোঁপা খোল।
এলিয়ে দাও চুল,উদ্দাম বরিষণে।
তোমার আয়ত নয়ন বেয়ে ঝরছে অবিরাম জলধারা।
তোমার কর্ণকুহর বেয়ে পড়ছে লাজুক বৃষ্টি।
গালের ওপর বেয়ে আসা লতার মতো ভেজা চুলগুলো
তুমি তুলে দাও একটু পরপর।
তোমার শাড়ির প্রতিটি ভাঁজ লাজুক
ভঙ্গীমায় তোমাকে করেছে বরণ।
তোমার শরীর আগলে ধরেছে নীল শাড়ির
প্রতিটি ভাঁজ বড় আপন করে।

এইযে মেঘের গর্জন! সেটাতো তোমাকে জানিয়ে অভিবাদন
মেঘমালার আনন্দধ্বনি বাজিছে অবিরাম।
এইযে শ্যামল প্রকৃতি চুপসে গেছে বর্ষণের তোড়ে
তোমার প্রতি বিনয় প্রকাশ ভালোবাসায় নরম হয়ে।

প্রিয়তমা, ঘরে ফেরার এতো তাড়া কেন?
বরিষণ তোমার প্রেমে আমি বিভোর যেন।
বৃষ্টি বিলাস তোমার চোখে এনে দেয় ঘুম
আর আমাকে করেছে বিরাগী,বিভোর, নি:র্ঘুম।

সুবর্ণ শৈশব- কবি।

আরও পড়ুন