বোহেমিয়ান হতাশা

ফারহানা শরমীন জেনী

শুরু হয়েছে বেলা পড়ে আসার খেলা
নতজানু হয়ে যায়
দিনের তীব্র রোদের সমুখে;
রোদ সইবার ক্ষমতা আমার নেই!
আমি দূর্বল!
আমি সমুখ তিমির পানে
দূরাশায় হাতরে বেড়াই
সুখ পিয়াসী আলেয়ার সন্ধানে।
মরিচীকা পানে হাটঁতে হাটঁতে
বারবার আশায় বুক বাঁধি ভাবি–
” এইতো সামনে জলধি”!
“তৃষিত তৃষ্ণারা বিদ্রুপের অট্টহাসিতে
ফেটে পড়ে ;আর আমি —
বিপুল উদ্দীপনায় স্বপ্নের ফোয়ারা ছেড়ে
গুন্জন শুনি অশান্ত হৃদয়ের কান্না লুকাতে। বোহেমিয়ান জীবন নিয়ে আর কি লিখবো!!
রাতের ফুটপাতে নিঃসঙ্গ সারমেয়র সাথে
নিয়ণের আলোর নিচে কেটে যায়
রাতের পর রাত;
শুষ্ক পাউরুটির প্রাপ্তি
তাকে করে কৃতজ্ঞ!
অথচ নিষ্কর্মা আমি–
অক্সিজেনের কৃতজ্ঞতাতেও
নতজানু হইনা স্রষ্টার কাছে!
অথচ পাতার পর পাতা লিখে যায়
বোহেমিয়ান হতাশার গল্প!

০৫/০৩/২০২০
রাজশাহী।

ফারহানা শরমীন জেনী – কবি, সাহিত্যিক ও সহ-সম্পাদক, মহীয়সী।

আরও পড়ুন