শ্মশানকালী

এইচ বি রিতা

আমি নারী আমি অষ্টধা, আমি সংহরণ নববিধা
অসুরাশক্তি হরণকারী অচলকঠিনমৃদঙ্গ লীলায় লালী
দক্ষিণা,সিদ্ধ, গুহ্য, মহা, ভদ্র, চামুণ্ডা, শ্রী
আমিই সর্বশেষ ধ্বংসশক্তি শ্মশানকালী।
আমার বিচরণ-বিসর্জন শ্মশান ঘাট; পুরোহিতের নাই গাঁট
অশুভ শক্তি বশি অমাবস্যা পুর্ণিমায় নরমুন্ডু খশি
আমি ধ্বংস শক্তি, ভয়াবহতার রূপ শ্মশানদেবী।
রক্তপিঙ্গল দর্শনেন্ত্রিয়, তম কৃশানু ব্যভিচারী
আমি শ্মশানকালী, আমি শ্মশানের অধিষ্ঠাত্রী।
আমি উলঙ্গ মদ্যপ
আমি উন্মত্ত মদ-মাংসে ক্ষুধার রাজ্যে টানি প্রলেপ
আমি ভয়াবহ নগরের বুকে নিষিদ্ধ
নৃ-কর্তনে হই শুদ্ধ।
রক্তপিপাসু পরাশক্তি, কভু আশীবিষে বেষ্টিত দেবী
ভয়ংকর আমি অভীক; আমি ইন্দ্রালয়ের রবি।
আমি মহাকাল, গ্রাসকারীনি, আমি আদ্যাশক্তি মহামায়া
ভিন্ন রুপে মানবকূলে তাই আমার সর্বগ্রাসী ছায়া।

কবিঃ সাহিত্যিক, কলামিস্ট এরং প্রথম আলোর সাংবাদিক, ইউএসএ

আরও পড়ুন