স্মৃতি মন্থন

দৃষ্টির শুরু থেকে শেষ সীমানায়
শূণ্য অভ্র, গাছ-লতা-পাতায়
কিংবা মাঠে যতদূর চোখ যায় —
যেথা আকাশ মাটিতে লুটায়
সকল স্থানে যেন দেখি তোমায়।।

তোমায় দেখি পাখির পাখায়
তোমায় দেখি সুদূর নীলিমায়
তোমায় দেখি জোনাকির আলোয়
দেখি তোমায় নিবিড় বনছায়।।

বৈশাখের ঘুঘু ডাকা নীরব দুপুরে
ছোট্ট কিশোরীর রুমুর ঝুমুর নুপুরে,
কৃষকের শ্রমক্লান্ত গানের সুরে
কখনো রাস্তায় গাড়ির ভিড়ে—-
শুধুই যেন দেখি তোমারে।।

ফসলের মাঠের সবুজ গালিচায়
নিঃসীম প্রান্তরের দূর সীমানায়
পূর্ণিমা রাতের চাঁদের জোছনায়
দিনের শেষের গোধুলী বেলায় —-
কেবলই তোমার অস্তিত্ব দেখিতে পাই।।

আঁধার রাতের দূর নভোমন্ডলের গায়
ঝিকিমিকি জ্বলে থাকা হাজার তারায়
শরৎ কাহিনীর প্রতিটি পাতায়
আমার লিখা সকল কবিতায় ——-
সব, সবখানে যেন দেখি তোমায়।।

হোসনে আরা মেঘনা- কবিও মডারেটর মহীয়সী।    

আরও পড়ুন